Header Ads

গুয়াহাটির গণেশগুড়িতে নতুন উড়লপুলের শিলান্যাস করলেন মুখ্যমন্ত্ৰী

ছবি, সৌঃজিপ্লাস
দেবযানী পাটিকর, গুয়াহাটিঃ অসমের মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সনোয়াল বুধবার গণেশগুড়িতে নতুন উড়ালপুলের শিলান্যাস করলেন। ৫৮৭৬ কোটি টাকা ব্যয় সাপেক্ষে ৪৭৬ দৈর্ঘ্যের নতুন উড়ালপুলের শিলান্যাস করে মুখ্যমন্ত্রী সনোয়াল বলেন- গুয়াহাটি শহরের অন্যতম ব্যবসায়ী অঞ্চল হচ্ছে গণেশগুরি। এই উড়ালপুলটি নির্মাণ হয়ে উঠলে যানজটের সমস্যা অনেকটাই কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। অসম সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে গুয়াহাটি শহরটিকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মুখ্য দুয়ার রূপে গড়ে তোলা। এই উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে রাজ্য সরকার গত দু বছর ধরে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করে রাজধানী গুয়াহাটি মহানগরকে দেশের অন্যতম স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়ে তুলতে একাধিক প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন- আন্তৰ্জাতিক পর্যায়ে মহানগরকে গড়ে তুললেই হবে না। এর সাথে শহরটির বাসিন্দাদেরও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। গুয়াহাটির উন্নয়ন এবং সম্প্রসারনের ফলে দেশ-বিদেশের বহু পর্যটকের আগমনের সম্ভাবনাও বেড়েছে। গুয়াহাটিতে পৰ্যটন শিল্পকে উন্নয়ন করতে এই দিকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়ার আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে পুৰ্ত মন্ত্ৰী মন্ত্রী ডঃ হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেন - উড়ালপুলটি নির্মাণ হয়ে উঠলে রাধা গোবিন্দ বড়ুয়া পথের থেকে খানাপারা এবং উলুবারী থেকে রাধা গোবিন্দ বড়ুয়া পথ পর্যন্ত যাতায়াতের যথেষ্ঠ সুবিধা হয়ে যাবে। ফলে গণেশ গুলিতে প্রায় ৩৫ শতাংশ যানজট সমস্যা কমবে। প্রায় ১৮ মাসের ভিতরে এই উড়ালপুলের নির্মাণ সম্পন্ন হবার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। সেইসাথে তিনি বলেন-  যানজটের দীর্ঘমেয়াদি সমস্যার জন্য গণেশ মন্দিরের দিক থেকে বিষ্ণু রাভা সংযোগী উড়ালপুল এবং জিএনআরসির পয়েন্ট উড়ালপুল নির্মাণ এর জন্য পরিকল্পনা প্রস্তুত করা হচ্ছে। বুধবার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গুয়াহাটি লোকসভা কেন্দ্ৰের সাংসদ বিজয় চক্রবর্তী, রাজ্যের শিক্ষামন্ত্ৰী সিদ্ধাৰ্থ ভট্টাচাৰ্য, দিসপুর কেন্দ্ৰের বিধায়ক অতুল বরা, কার্বি আংলং স্বশাসিত পরিষদের সদস্য তুলিরাম রাংহাঙ এর সাথে বহু বিশিষ্ট লোকেরা উপস্থিত ছিলেন। অন্যদিকে বুধবার পরীক্ষামূলক ভাবে গুয়াহাটি এবং উত্তর গুয়াহাটি মধ্যে শুরু করা হয় রোপওয়ে। বর্তমানে এই রোপওয়ে কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। এবং এটি উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে। রোপওয়ের নির্মাণকার্য সম্পন্ন হওয়াতে স্বাভাবিকভাবেই খুশি গুয়াহাটি এবং উত্তর গুয়াহাটিবাসী। মাত্র ৮ মিনিটে পার হওয়া যাবে বিশাল মহাবাহু। যাত্রীরা এর নৈসর্গিক সৌন্দর্য উপভোগ করে যেতে পারবেন। ২কিমি  দৈর্ঘ্যের এই রোপওয়ে ৩০ জন যাত্রীকে একসাথে নিয়ে যাতায়াত করবে অপেক্ষা শুধু উদ্বোধনের।

No comments

Powered by Blogger.