Header Ads

বড়ো চুক্তির ৮ নং দফা বাতিল এবং অনুচ্ছেদ ২৪৪(ক) রূপায়ণের দাবীতে উত্তাল ডিফু ১৬ সংগঠনের প্ৰতিবাদ


সঙ্গীতা ভৌমিক দাসঃ ডিফু,
সংসদের আগন্তুক শীতকালীন অধিবেশনে কেন্দ্ৰ সরকার কাৰ্বি আংলং এবং ডিমা হাসাও পাৰ্বত্য জেলায় বসবাস করা বড়ো জনগোষ্ঠীকে পাৰ্বত্য জনজাতির মৰ্যাদা প্ৰদানের প্ৰক্ৰিয়া কাৰ্যকরী করার আশংকায় সম্প্ৰতি তিন পাহারীয়া জেলার পরিবেশ ক্ৰমশ  আন্দোলনমূখী হয়ে উঠেছে। পাহারীয়া জেলাগুলোকে নিয়ে ভারতীয় সংবিধানের ২৪৪(ক) ধারার অধিনে একটি স্বশাসিত রাজ্যর দাবীতে জেলার দল-সংগঠন গুলো বিগত কয়েক দশক ধরে আন্দোলন করে এসেছে। ২৪৪(ক) রূপায়ণ এবং বড়ো শান্তি চুক্তির ৮ নং দফা অনুসারে পূৰ্ৱ কাৰ্বি আংলং , পশ্চিম কাৰ্বি আংলং এবং ডিমাহাসাও জেলায় বসবাস করা বড়োদের কেন্দ্ৰ সরকার পাৰ্বত্য জনজাতির মৰ্যদা প্ৰদান করার জন্য গ্ৰহণ করা সিদ্ধান্ত  শীঘ্ৰে বাতিল  করার দাবীতে কাৰ্বি আংলং জেলার ডকমকা এবং হানজানলাংসো থেকে কাৰ্বি ছাত্ৰ সন্থা, কেএনসিএ,  কে এ ডব্লিউ জে এফ, কে ওয়াই ডি ও, এস ওয়াাই জে, এইচ পি ওয়াাই এ, ইউ কে ওয়াাই এ, এ আই কে এস ইউ, কে এ ডি এ, ইউ এল ডি সি, এন এস এম, এ কে এ এস কে ইউ, এ আই এস এ, কে ওয়াাই ও এবং কে এ ইউ পি এ সহ মোট ১৬টা সংগঠনের কয়েকশতাধিক সদস্য-সদস্যা ৮ ডিসেম্বর থেকে পদযাত্ৰা করে এসে আজ ডিফুর ছেমছন ছিং ইংতি স্মৃতি উদ্যানে উপস্থিত হয়। প্ৰতিবাদকারীরা কাৰ্বি আংলং স্বশাসিত পরিষদ, অসম সরকার এবং কেন্দ্ৰ সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন  শ্লোগান দিয়ে ডিফু শহরের রাজপথ উত্তাল করে তোলে। প্ৰতিবাদকারীরা মিছিল করে স্বশাসিত পরিষেদর মুখ্য কাৰ্যবাহী সদস্য তুলিরাম রংহাংকে সাক্ষাৎ করে তাদের দাবীগুলো  উত্থাপন করার সাথে মুখ্যকাৰ্যবাহীর মাধ্যমে প্ৰধান মন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদীকে এক স্মারক পত্ৰ প্ৰদান করার কথা ছিল। কিন্তু পরিষদের সচিবালয়ে মুখ্য কাৰ্যবাহী সদস্য তুলিরাম রংহাং বা কোনো একজন কাৰ্যবাহী সদস্য-সদস্যা উপস্থিত নাথাকায় প্ৰতিবাদকারী সংগঠনগুলো ক্ষোভিত হয়ে পরে। অবশ্যে পরে পাৰ্ষদ রিচাৰ্ড টকবী পরিষদের হয়ে স্মারক পত্ৰ গ্ৰহণ করেন।  ঘুরে এসে প্ৰতিবাদকারীরা ছেমছন ছি ইংতি উদ্যানে এক প্ৰতিবাদী সভার আয়োজন করে। কাৰ্বি ছাত্ৰ সন্থার সভাপতি ছেমিয়ন রংফার নিজ ভাষেণ বলেন যে আগে থেকে ভাতৃত্ববোধে বসবাস করে আসা কাৰ্বি এবং বড়ো জনগোষ্ঠীর মধ্যে বিভাজনের রাজনীতি করে পাৰ্বত্য জেলাগুলোকে অশান্ত জৰ্জর করার ষড়যন্ত্ৰ করছে বিজেপি।  ডিফু, দিছপুর এবং দিল্লীতে বিজেপি সরকার থাকার পরও বিগত কয়েকদশক ধরে চলে আসা স্বশাসিত রাজ্য গঠনের দাবীকে অধিক জোরদার করতে নাপারাটা অতি পরিতাপের কথা। আজকের প্ৰতিবাদী কাৰ্যসূচীতে অংশগ্ৰহণকারীরা পাৰ্বত্য জেলাতে বসবাস করে আসা বড়োদের পাৰ্বত্য জনজাতির মৰ্যাদা প্ৰদান করা কাৰ্যকে তীব্ৰ বিরোধিতা করার সাথে এর অন্যথা জংগী আন্দোলনের কাৰ্যসূচী হাতে নেওয়া হবে বলে সরকারকে শাসিয়ে দেয়। 

No comments

Powered by Blogger.