Header Ads

ডিমা হাসাওয়ে মাক্স ব্যবহার, সামাজিক দূরত্ব মানছে না একাংশ লোকে

    বিপ্লব দেব, হাফলং, ২৯ জুনঃ        সাপ্তাহিক লক ডাউনের পর হাফলঙে সরকারি নীতি নির্দেশিকা আমান্য সাধারণ মানুষের। সামাজিক দূরত্ব মানছে না একাংশ মানুষ।  রাজ্যে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুত হারে বৃদ্ধি পাওয়ার দরুন রাজ্য সরকার রাজ্যের পুর এলাকা ও নগর সমিতি এলাকায় শনিবার ও রবিবার সাপ্তাহিক লকডাউন ঘোষণা করেছে। কিন্তু শনিবার ও রবিবার সাপ্তাহিক লকডাউন শেষ হওয়ার পর সোমবার হাফলং শহরে প্রচুর লোকের সমাগম ঘটে বাজার হাটে প্রচুর ভিড় দেখা যায় এমনকি বাজারে দোকান গুলিতে গ্রাহকদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে দেখা যায় নি।


ব্যবসায়ীরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ক্ষেত্রে কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করতে দেখা যায়নি। সোমবার হাফলং বাজারের দৃশ্য কার্যত গণ সংক্রমণকে ডেকে আনতে পারে পাহাড়ি জেলাতে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

 ডিমা হাসাও জেলায় এখন পর্যন্ত ১১৯ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এদের মধ্যে অনেক হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় দ্বিতীয়বার করোনা টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে যার ফলে ডিমা হাসাও জেলায় চার চারটি এলাকাকে কন্টেনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করে জেলাপ্রশাসন। এর মধ্যে রয়েছে উমরাংসো পানিমর ছোট লংফার নেপালী বস্তি, মাহুর ডিনগাম গ্রাম মাইবাং মহকুমার গুইলুংকাম গ্রাম ও হাতিখালির ডিমাহাডিং গ্রাম রয়েছে। ডিমা হাসাও প্রতিদিনই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তারপর ও সাধারণ মানুষ মধ্যে সচেতনতার অভাব রয়েছে। বাইরে বেড়িয়ে আসার পর ও অনেকে মাক্স ব্যবহার করছে না যার দরুন গন সংক্রমনের আশঙ্কা বাড়ছে পাহাড়ে। জেলাপ্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন রোধ করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ ও সজাগতা চালানোর পর ও ডিমা হাসাও জেলায় সাধারণ মানুষ সরকারি নীতি নির্দেশিকা সহ সামাজিক দূরত্ব কিছুই মানছে না। সোমবার এমনই দৃশ্য দেখা যায় হাফলং বাজারে। আর এতেই চিন্তিত হয়ে উঠেছেন জেলার সচেতন মহল। ইন্ডিয়ান রেড ক্রস সোসাইটির ডিমা হাসাও জেলা শাখা হাফলং শহরে মাক্স ব্যবহার ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য ব্যাপক সচেতনতা অভিযান চালাচ্ছে। রেডক্রস সোসাইটির সাধারন সম্পাদক নির্মল সিং বলেন আন লক ওয়ান চলাকালীন রাজ্যের মানুষ সরকারি নীতি নির্দেশিকা না মানার জেরে রাজ্যে গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়েছে তাই বাধ্য হয়ে রাজ্য সরকার লকডাউন ঘোষনা করতে বাধ্য হয়েছে। আর তার জন্য আমরা নিজেরাই দায়ি তাই ডিমা হাসাও জেলা গোষ্ঠী সংক্রমনের পথে না যেতে পারে তারজন্য সরকারি নীতি নির্দেশিকা সামাজিক দূরত্ব ও জনবহুল এলাকায় মাক্স ব্যবহার করার জন্য আহ্বান জানান নির্মল সিং।

No comments

Powered by Blogger.