Header Ads

আরো আক্রান্ত, আরো মৃত্যু? সমস্যা নেই, অর্থনীতি বাঁচাতে হবে : ট্রাম্প !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়
সারা বিশ্ব জুড়ে চলছে করোনার প্রকোপ। এরই মধ্যে মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এখন পর্যন্ত দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ৭১ হাজার ছাড়িয়েছে।  তবে এই সংকটজনক পরিস্থিতির মধ্যে জনগণের স্বাস্থ্যের তোয়াক্কা না করেই  অর্থনীতি আবারো সচল করার কথা বলছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মঙ্গলবার অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যের একটি মাস্ক উৎপাদন কারখানা পরিদর্শনে ট্রাম্প বলেন, পরিস্থিতি যাই হোক দেশের অর্থনীতি আবারো সচল করা হবে।  অর্থনীতি খুলে দেওয়ার পর করুন পরিণতি আসবে যুক্তরাষ্ট্রে এ বিষয় সহমত জানিয়েছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, অনেক মানুষ আক্রান্ত হবে এবং মারা যাবে তবু তারপরও আমাদের অর্থনীতি চালু করতে হবে।
এদিকে কারখানা পরিদর্শনের সময় বিশেষ চশমা পরে থাকলেও মুখে মাস্ক পরেননি ট্রাম্প। ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে মাস্ক পরতে বলা হলেও শুরু থেকেই এর কার্যকারিতা নিয়ে সন্দেহ পোষণ করে আসছিলেন ট্রাম্প। দীর্ঘদিন পর হোয়াইট হাউস থেকে বের হলেও মাস্ক না পরার ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন তিনি।
এরই মধ্যে করোনাভাইরাস টাস্ক ফোর্স ভেঙ্গে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।  এর জের ধরে করোনাভাইরাস মোকাবেলার উদ্যোগে বিশেষজ্ঞ ডা. ডেবোরাহ বার্কস ও ডা. অ্যান্থনি ফাউসি যুক্ত থাকবেন কিনা প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প বলেন, তারা থাকবেন এবং অপর বিশেষজ্ঞ ও ডাক্তাররাও মাঠে থাকবেন।
সমালোচকদের মতে, নভেম্বরের নির্বাচনকে সামনে রেখে জনগণের স্বাস্থ্যকে তোয়াক্কা না করেই অর্থনীতি আবারো শুরু করতে যাচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ কোনোভাবেই থামানো যাচ্ছে না। যাবতীয় কর্মকাণ্ড, লকডাউন, পিপিই-কিট সবকিছুর পরেও যুক্তরাষ্ট্রে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসছে না। থামছে না মৃত্যু মিছিল। মঙ্গলবারেও দেশটিতে করোনার জেরে মৃত্যু হয়েছে ২,৩৩৩ জনের। জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য এমনটাই বলছে।
গত ২৪ ঘন্টায় ২ হাজার ৩৩৩ জনের মৃত্যুর ফলে মার্কিনমুলুকে ৭১ হাজার পেরিয়ে গেছে মৃতের সংখ্যা। এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ৭১ হাজার ৯৬২ জনের। যে কোনও মুহূর্তে সংখ্যাটা ৭২ হাজার হতে পারে।
এখন পর্যন্ত মার্কিন মুলুকে করোনায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১২ লক্ষ ৩৭ হাজারের বেশি মানুষ। এরমধ্যে ৭১ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে ও সুস্থ হয়েছেন ২ লক্ষের বেশি মানুষ।
নিউ ইয়র্কের অবস্থা সবচেয়ে ভয়াবহ। সেখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লক্ষ ৩০ হাজার ছাড়িয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ২৫ হাজার ২০৪ জনের। এরপরেই রয়েছে নিউজার্সি। সেখানে আক্রান্ত ১ লক্ষ ৩১ হাজার মানুষ। সেখানে মৃতের সংখ্যা ৮ হাজারের অধিক।
মঙ্গলবারের তথ্য অনুযায়ী এই শহর ভিত্তিক রিপোর্ট সামনে এসেছে।
সোমবার যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর রেকর্ড ছিল সর্বনিম্ন। হপকিন্স ইউনিভার্সিটির পরিসংখ্যান জানিয়েছিল সোমবার মৃত্যু হয়েছিল ১০১৫ জনের। সকলে ভাবছিলেন তবে কি ধীরে ধীরে স্বাভাবিকের দিকে এগোচ্ছে আমেরিকার পরিস্থিতি? কিন্তু মঙ্গলবারের রিপোর্ট সে আশায় জল ঢেলে দিল।
এদিকে মৃত্যু মিছিলের মাঝেও শুক্রবার আমেরিকায় ১২ টিরও বেশি রাজ্যে খুলেছে রেস্তোরাঁ, দোকান ও অন্য ব্যবসা। নিজস্ব বাধানিষেধ মেনে অর্থনীতি উদ্ধার করতে চলেছে ব্যবসা !

No comments

Powered by Blogger.