Header Ads

শৌচাগার ব্যবহারকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার হুগলিতে, সাসপেন্ড ইন্টারনেট পরিষেবা !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়
 
করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই হুগলিতে উত্তেজনা। পাবলিক টয়লেট ব্যবহার নিয়ে ধুন্ধুমার বাধে। যার জেরে আগামী ১৭ মে পর্যন্ত চন্দননগর, শ্রীরামপুর সাবডিভিশনে ইন্টারনেট পরিষেবা
বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। গোটা এলাকা থমথমে। চলছে পুলিসি টহল। 
 
হুগলি জেলায় ব্যপক সংঘর্ষ বাধে। পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন পুলিসকর্মীরাও। ৫ পুলিসকর্মী আহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন সাতজন স্থানীয় বাসিন্দাও। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে গোটা এলাকা। এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় ৭২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।
হুগলির ঘটনায় উত্তেজনা নিয়ন্ত্রণে আনতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা। আগামী ১৭ মে সন্ধে ৬টা পর্যন্ত হুগলির চন্দননগর এবং শ্রীরামপুর সাবডিভিশনে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো খবর ছড়িয়ে আরও অশান্তি ছড়ানো হতে পারে এই আশঙ্কাতেই আগাম সাবধানতা হিসেবে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করা হয়েছে।
হুগলির ঘটনা নিয়ে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলিকে সতর্ক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি অভিযোগ করেছেন উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা চলছে। রাজ্যে এভাবে অশান্তি ছড়ানো হলে সরকার কাউকে রেয়াত করবে না। দলমত নির্বিশেষে কড়া ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন।
এদিকে হুগলির ঘটনা নিয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের হস্তক্ষেপ দাবি করেছে বিজেপি। শাসক দল তৃণমূল আশ্রিত গুণ্ডারাই হুগলিতে অশান্তি ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন দিলীপ ঘোষরা। এই ঘটনা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও।

No comments

Powered by Blogger.