Header Ads

অন্ধ্ৰপ্ৰদেশের ভাইজাগে বিষাক্ত গ্যাস লিক করে শিশু সমেত মৃত ১১, অসুস্থ প্ৰায় ৫০০০

নয়া ঠাহর ওয়েব ডেস্ক, ৭ মেঃ অন্ধ্ৰপ্ৰদেশের ভাইজাগে বিষাক্ত গ্যাস লিক করে শিশু সমেত অন্তত ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। শ্বাসকষ্টের সমস্যায় অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১০০০ জনের বেশি। অসুস্থ হয়ে পড়েছেন প্ৰায় ৫০০০ মানুষ। ঘুমের ঘোরে জ্ঞান হারান অনেকেই। মহামারি করোনার আতঙ্কের মধ্যেই এমন দুৰ্ঘটনার ছবি দেখা গেল বিশাখাপত্তনমে।  
ছবি, সৌঃ ইন্টারনেট

এলজি পলিমাৰ্স ইন্ডিয়া প্ৰাইভেট লিমিটেড নামের বহুজাতিক রাসায়নিক কারখানা থেকে টক্সিক গ্যাস নিৰ্গত হওয়ার ফলেই এই দুৰ্ঘটনা। রাস্তায় বহু মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ে থাকতে দেখা যায়। তাদের সেখান থেকে উদ্ধার করে শহরের হাসপাতালে নিয়ে যায় দমকল ও বিপৰ্যয় মোকাবিলা বাহিনী। মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার ভোররাত আড়াইটে থেকে কারখানার একটা ট্যাঙ্ক ফেটে গ্যাস লিক হতে থাকে। ওই ট্যাঙ্ক গত কিছুদিন ধরে রক্ষনাবেক্ষন হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। বিপদ বুঝে কারখানা থেকে সাইরেন বাজিয়ে দেওয়া হয়। ঘটনাস্থল থেকে তিন কিলোমিটার পৰ্যন্ত বিষাক্ত গ্যাস ছড়িয়ে পড়ে। প্ৰশাসনের তরফ থেকে আশেপাশের এলাকা খালি করে দেওয়ার নিৰ্দেশ দেওয়া হয়। মানুষকে ভেজা কাপড় দিয়ে মুখ ঢেকে রাখার পরামৰ্শ দেওয়া হয়েছে। বিষাক্ত গ্যাসে বহু পশু অসুস্থ হয়েছে।

বিশাখাপত্তনমের দক্ষিণ শহরতলির কাছে গোপালপত্তনম এলাকায় রয়েছে এলজি পলিমার ইন্ডিয়া প্ৰাইভেট লিমিটেড নামের ওই রাসায়নিক কারখান। সেখানে পলিয়েস্টার পলিথিন তৈরি হয়। সেই কাজে ব্যবহার করা হত স্টাইরিন নামের গ্যাস। তা মানব শরীরের জন্য ক্ষতিকর। ওই গ্যাস নিশ্বাসের সঙ্গে শরীরের ভেতরে গেলে ক্যান্সার পৰ্যন্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে বলে জানা যাচ্ছে।
এই ঘটনায় টুইট করেছেন প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদী। ফোনে অন্ধ্ৰপ্ৰদেশের মুখ্যমন্ত্ৰী জগন্মোহন রেড্ডির সঙ্গে কথা বলে বিস্তারিত জানতে চান তিনি। অসুস্থদের দেখতে কিং জৰ্জ হাসপাতালে গিয়েছেন অন্ধ্ৰপ্ৰদেশের মুখ্যমন্ত্ৰী। মৃতদের পরিবারকে এক কোটি টাকার সাহায্যের ঘোষণা করেন তিনি।

      

No comments

Powered by Blogger.