Header Ads

২১ তারিখ থেকে সরকারি অফিলগুলো খুলে যাবে, করোনার উদ্ভূত পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে : হিমন্ত




অমল গুপ্ত, গুয়াহাটি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশ জুড়ে লকডাউনের দ্বিতীয় পর্যায়ে মে পর্যন্ত ঘোষণা করে আশ্বাস দিয়েছিলেন ১৪ তারিখ থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত এক সপ্তাহে যদি পরিস্থিতির উন্নতি হয়, তবে রাজ্য সরকারের অনুমোদনক্রমে লকডাউন কিছু শিথিল করা হবেঅন্যান্য রাজ্যের সঙ্গে তুলনামূলকভাবে অসমের করোনা ভাইরাস উদ্ভূত পরিস্থিতি কিছুটা ভালোকেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন নিয়ে অসম সরকারের জেনারেল এডমিনিষ্ট্রটেটিভ বিভাগ আজ জি ডি,,১২৭ ২০২০,২৪ নম্বর আদেশ দিয়ে আগামী ২১ এপ্রিল থেকে মে পর্যন্ত জনতা ভবন সহ জেলা মহকুমার সরকারি কার্য্যলয় ৩৩ শতাংশ কর্মী নিয়ে চালানো হবে    গ্রেড ওয়ান গ্রেড টু কর্মী প্রয়োজনে থ্রী চতুর্থ কর্মীদের মধ্য থেকে কর্মী বেছে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিয়ম বেঁধে দেওয়া রোটেশন ভিত্তিতে অফিসে আসতে হবেকোভিড ১৯ রোগ প্রতিরোধে সরকারের স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবেপ্রত্যেক কর্মীকে মাস্ক পড়তেই হবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলতে হবে। এমনকি থুতু ফেলাও শাস্তিমূলক অপরাধ বলে গণ্য করা হবেসরকার পরিস্থিতি পর্যালোচনা করার পর মে- পর পুনরায় নতুন নির্দেশ জারি করা হবে বলে জি ডি- কমিশনার সচিব এম অঙ্গুমুঠু জানিয়েছেন২০ এপ্রিল সতী সাধনী দিবস তাই ২১ এপ্রিল থেকে সরকারি কার্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকারআগামীকাল রাজ্যের তিনটি টোল গেট খোলা হবে২০ তারিখ থেকে চা দোকান, সব্জি, মাছ-মাংস, দুধের দোকান, মালবাহী ট্রাক, হাইওয়ে ধাবা, গাড়ি মেরামত দোকান, গ্রামের রাস্তা মেরামত, কয়লা পরিবহন প্রভৃতি খোলা হবে, সব বিদ্যালয়, কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়, যাত্রীবাহী ট্রেন, সিনেমা, শপিংমল, আন্তজেলা, স্থানীয় বাস সেবা বন্ধ,  ধর্মীয় স্থান, সেলুন প্রভৃতি বন্ধ থাকবেআজ স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মা জানান, অসমে হাজার ৪০০ নমুনা পরীক্ষা করে ৪১৯৯টি নেগেটিভ, ১৬৭টি ফলাফল জানা ৩৪ জনের পজিটিভ।

No comments

Powered by Blogger.