Header Ads

করোনা দাপটে অনির্দিষ্ট কালের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হল NPR, জনগণনা !!

 বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়

করোনা ভাইরাসের জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হল এনপিআর এবং জনগণনা। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে বিবৃতি জারি করে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। ২০২১ সালে জনগণনা হওয়ার কথা ছিল। তার আগে এনপিআর শেষ করতে বলা হয়েছিল রাজ্যগুলিকে। একাধিক রাজ্যে এনপিআর নিয়ে বিরোধিতা করেছিল। কিন্তু করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ সব পরিকল্পনাতেই জল ঢেলে দিয়েছে।

গোটা দেশে এখন করোনা ভাইরাসের থাবা। আতঙ্কে ঘরবন্দি মানুষজন। ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছেন মোদী সরকার পরিস্থিতি বিবেচনা করে--তাই এনপিআর এবং জনগণনা পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। বিবৃতি জারি করে অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে এনপিআর আর জনগণনা। ২০২১ সালে জনগণনা হওয়ার কথা ছিল গোটা দেশে। তার আগে এনপিআর শেষ হওয়ার কথা ছিল। ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে এনপিআর সিদ্ধান্তও অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।
করোনা আতঙ্কে থমকে গিয়েছে সিএএ বিরোধী আন্দোলনও। গত কয়েকদিনে খালি করে দেওয়া হয়েছে দেশের সব সিএএ বিরোধী আন্দোলনের ঠেকগুলি। শাহিনবাগ থেকে কলকাতার পার্কসার্কাস এমনকী লখনউয়ের ঘণ্টামোড়ও খালি করে দেওয়া হয়েছে। এতদিন যেটা করে উঠতে পারছিল না মোদী সরকার। করোনার আতঙ্ক সেটা করে দেখিয়েছে।
করোনা সংক্রমণ রুখতে গোটা দেশে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। সকলকে বাড়ি থেকে না বেরনোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। লকডাউন রুখতে বলপ্রয়োগ করতে শুরু করেছে পুলিস। প্রয়োজনে কার্ফু জারি করার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

No comments

Powered by Blogger.