Header Ads

কঠিন পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী’র নেতৃত্বে ভারত গ্লোবাল লিডার হয়ে উঠছে, দাবি আন্তর্জাতিক মিডিয়ার !!

 বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়

বর্তমান বিশ্বের সামনে কঠিন পরিস্থিতি এসে দাঁড়িয়েছে। চীন থেকে শুরু করে ইতালি-ইউরোপ থেকে শুরু করে সৌদি আরব সহ সর্বত্র করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে। এই কঠিন পরিস্থিতিতে ভারত একমাত্র দেশ যা বিশ্বকে পথ দেখাতে পারবে বলে মনে করা হচ্ছে। করোনাকে নিয়ে পুরো বিশ্বে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।


 চীন থেকে উৎপন্ন ভাইরাস জাপান, জার্মানি, পুরো ইউরোপ এবং আমেরিকায় ছড়িয়ে পড়েছে। ভারত চীনের সাথে হাজার কিমি বর্ডার শেয়ার করে। সেই হিসেবে ভারতেও করোনা ভাইরাসের বড় প্রকোপ দেখতে পাওয়ার কথা। কিন্তু এখনও অবধি রি ভাইরাস ভারতে তেমন প্রভাব ফেলতে পারেনি। এর মুল কারণ ভারত ও ভারতীয়দের সচেতনতা বলেই মনে করছে আন্তর্জাতিক মহল।
অন্যদিকে করোনা ভাইরাসকে আটকানোর জন্য বিশ্বজুড়ে ভারতের ব্যাপক প্রশংসা শোনা যাচ্ছে। আন্তর্জাতিক নিউজ চ্যানেল Wionews এর মতে ভারত এখন নতুন গ্লোবাল লিডার হিসেবে উঠে আসতে শুরু করেছে। প্রধানমন্ত্রী মোদীর নেতৃত্বে ভারত বিশ্বকে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি জোগান দিচ্ছে বলে দাবি এই আন্তর্জাতিক নিউজ চ্যানেলের।
(Global praise for Prime Minister Modi for the way he has tackled #Coronavirus outbreak and created a task force involving multiple countries… pic.twitter.com/su9miVJemc
— Amit Malviya (@amitmalviya) March 16, 2020
https://platform.twitter.com/widgets.js)
এমনকি WHO-এর তরফেও ভারতের কাজের দারুন প্রশংসা করা হয়েছে। WHO-এর প্রতিনিধিরা বলেছেন ভারত যে কাজ করেছে তা মুগ্ধ হওয়ার মতো। WHO-এর এক প্রতিনিধি আজ খোলাখুলি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রশংসা করেছেন। উনি বলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী’র কারণে করোনা ভাইরাস তেমন প্রভাব ফেলতে পারেনি।
চীনে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে ভারত সরকার সক্রিয় হয়ে মাঠে নেমেছিল। ভারত একমাত্র দেশ যারা এই ভাইরাসের খবর পাওয়া মাত্র ভিসা ক্যান্সেল প্রক্রিয়া শুরু করেছিল। শুধু তাই নয়, ভারত সর্বপ্রথম বিদেশে থাকা ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনতে শুরু করেছিল এবং সমস্ত এয়ারপোর্টে স্ক্রিনিং শুরু করেছিল।
ফেব্রুয়ারি মাসে যখন পুরো বিশ্ব হাতের উপর হাত গুটিয়ে বসেছিল তখন মোদী সরকার যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ করছিল। ইরান থেকে ভারতীয়দের টেস্ট করিয়ে ভারত ফিরিয়ে আনতে চেয়েছিল। কিন্তু সেক্ষেত্রে ইরানে টেস্টের সরঞ্জাম না থাকায় ভারত নিজের পুরো ল্যাব ইরানে ইনস্টল করিয়ে ভারতীয়দের টেস্ট করিয়ে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া চালায়। এমনকি ওই ল্যাব ইরানকে দান করার ঘোষণাও করে। ভারত সরকারের এমন সচেতনতার কারণেই করোনা প্রকোপ ভারতে গতি পায়নি বলে মনে করা হচ্ছে।

No comments

Powered by Blogger.