Header Ads

অসমে একজনও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি, ২৯ জন সন্দেহ জনকের রক্ত পরীক্ষা করা হয় ২৮ জনের নেগেটিভ, আতঙ্কিত হবেন না অভয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার


অমল গুপ্ত গুয়াহাটিঃ 

সারা দেশে ১১৪ জনের দেহে  করোনা ভাইরাস এর কোভিড ১৯ জীবাণু ধরা পড়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু  কোভিড ১৯ কে অতিমারি ঘোষণা করেছে,ভারত জাতীয় বিপর্যয় ঘোষণা করেছে, সারা বিশ্বে এই মারণ রোগ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। সেই তুলনায় অসম এখন পযন্ত  একজনও আক্রান্ত হয় নি। গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে  সন্দেহজনক ২৯ জনের নমুনা  পরীক্ষা হয়েছিল, ২৮ জনই  নেগেটিভ, ভয়ের কারণ নেই,। আজ স্বাস্থ্য মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জনতা ভবনে সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে একথা জানিয়ে  রাজ্যবাসীর কাছে  আহ্বান জানান, আতঙ্কিত হবেন না, মানুষের মধ্যে সজাগ তা, সচেতনতা গড়ে তুলুন। তিনি জানান, দুজনের রক্তের নমুনা পুনের জাতীয় গবেষণাগারে পাঠানো হয়েছে। এই জীবাণুর রক্ত পরীক্ষার জন্যে জোরহাট, গুয়াহাটি লাওহাল  মেডিক্যাল গবেষণাগার কে বিশেষ সুবিধাযুক্ত ভাবে গড়ে তোলা হয়েছে,পরবর্তীতে শিলচর মেডিক্যাল কলেজকে গড়ে তোলা হবে। বরপেটা, তেজপুর, জোরহাট  প্রভৃতি ৬ টি মেডিক্যাল কলেজ  রক্ত  সংগ্রহের ব্যবস্থা করা হয়েছে। জানান ২ হাজার কোয়ারেন্টিন সেন্টার ছাড়াও। ৫০৭ টি  আইসোলেশন বেডের ব্যবস্থা হয়েছে  ,অত্যাধুনিক ১২ হাজারের বেশি পরীক্ষার  যন্ত্রপাতি, ৫ হাজার এন ৯৫ মাস্ক, ৫০ লাখের বেশি  গ্লাভস, ২৭০ টি ভেন্টিলেশন এর ব্যবস্থা  করা হয়েছে। কেবল সরকারি হাসপাতালে এই ব্যবস্থা হয়েছে, নার্সিং হোম গুলোতে ৫০ টি বেড রাখা হয়েছে। সরকার আগামী ২৯ মার্চ পযন্ত সব সরকারি বেসরকারী বিদ্যালয় কলেজ বন্ধ রাখা হলেও বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের  যথারীতি  বিদ্যালয়ে গিয়ে  কাছে ভিতে  গ্রামগুলোতে গিয়ে  করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সজাগতা গড়ে তুলতে হবে। শিক্ষা  বিভাগের মন্ত্রী  হিসেবে হিমন্ত আরো জানান  বিদ্যালয় বন্ধ থাকলেও  মিড ডে মিল  বন্ধ করা হবে না।  দারিদ্র পীড়িত ছাত্রদের কথা চিন্তা করে চাল বন্টন করা হবে। জানান শুধু বিদেশের  পর্যটকদের নয়  এদেশের মানুষদের ও বিমানবন্দরে নামলে পরীক্ষা করা হবে, রাজধানী এক্সপ্রেস ট্রেন  যেখানে থামবে  সেখানেও যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা থাকবে। যতই চেষ্টা করা হোক না কেন, এই রোগ প্রতিরোধ করা সহজ সাধ্য নয় বলে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন সব  প্রত্যন্তর  জায়গা তে  মেডিক্যাল টিম পৌছেতে পারবে না। জনাকীর্ণ জমায়েত পরিহার করার উপর জোর দিয়ে বলেন, হ্যান্ড সেকের বদলে  অর্ন্তত এক মিটার দূর থেকে নমস্কার করার পরার্মশ দেন। জ্বর  ,কাশি, হাঁচি  প্রভৃতি হলে না লুকিয়ে  অবিলম্বে ডাক্তারের কাছে  যাওয়ার পরামর্শও দেন। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এক  স্থানে ৫০ জনের বেশি জমায়েতের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন। এই প্রসঙ্গে হিমন্ত বিশ্ব শর্মা  দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী র সমালোচনা করে বলেন, পার্লামেন্ট ভবন কি দিল্লির বাইরে? সেখানে ৫০০ জনের বেশি  জন প্রতিনিধি উপস্থিত থাকেন। তিনি আবার দিল্লি সরকারের মহল্লা ক্লিনিকের সমালোচনা করে বলেন, সেখানে আবর্জনার পাশে ক্লিনিক গুলো আছে।তা কি স্বাস্থ্য সম্মত?  বিটিসি নির্বাচন 4 এপ্রিল,  সে সম্পর্কে বলেন, ১০ এপ্রিল এর  মধ্যে নির্বাচন  করাতেই হবে। জনজীবনে যাতে এই  ভাইরাস  বিরূপ  প্রভাব না পড়ে তা সুনিশ্চিত  করতে হবে।  শপিং মলগুলি খোলা আছে, সে সম্পর্কে বলেন, ১৫ দিন বন্ধ ঘোষণা করলে গরিব কর্মচারীরা খাবে কি? পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ কলকাতায় সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে আগামী ১৫ এপ্রিল পযন্ত সব বিদ্যালয় কলেজ বন্ধ  ঘোষণা করেন। ২০০ কোটি টাকার তহবিল গড়ার কথা জানান। এই টাকায় যারা  করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কাজ করছেন এই রকম ১০ লাখ কর্মীকে ৫ লাখ টাকার বিমার ব্যবস্থা করা হয়েছে। আগামী বুধবার থেকে বিধানসভার অধিবেশন বন্ধ   রাখা হবে।

No comments

Powered by Blogger.