Header Ads

'কংগ্রেস যে খারাপ ফল করবে সেপ্টেম্বর থেকেই জানতাম', দিল্লি নির্বাচন নিয়ে বোমা ফাটালেন শীলা-পুত্র !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় 

দিল্লিতে প্রাথমিক গণনা শেষ হতেই মোটামুটি ফলাফলের ট্রেন্ড প্রকাশ্যে আসতে শুরু করে। আর তাতে দেখা যায় পর পর ৩ বার জিততে চলেছে কেজরিওয়াল শিবির। আম আদমি পার্টির জয় যেমন একদিকে দিল্লি নির্বাচনের নিরিখে বড় বিষয় হয়ে উঠতে শুরু করেছে, অন্যদিকে তেমনই কংগ্রেসের হার তথা একটিও আসন না পাওয়া জাতীয় রাজনীতির ক্ষেত্রে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে এসেছে। আর এই নিয়ে এবার মুখ খুলেছেন দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেসনেত্রী শীলা দীক্ষিতের ছেলে সন্দীপ।

এদিন সন্দীপ দীক্ষিত বলেন, 'আমি সেপ্টেম্বর থেকেই জানতাম যে কংগ্রেস খুব খারাপ ফল করবে। ', কংগ্রেসের অন্দর থেকেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর পুত্রের এই বিস্ফোরক বক্তব্য নিঃসন্দেহে রাজধানীর রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে রীতিমতো চাঞ্চল্যকর ।
সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কংগ্রেসের তরফে সন্দীপের দাবি, 'কংগ্রেসের দিল্লি প্রধানের উদাসীনতা ও দিল্লির ২ থেকে ৩জন কংগ্রেসকর্মী এই হারের জন্য সরাসরিভাবে দায়ী।' এমন দাবি করে দিল্লি কংগ্রেসের অন্দরের কোন্দলকে আরও স্পষ্ট করে দিয়েছেন সন্দীপ।
মনে করা হচ্ছে একাধিক জায়গায় কংগ্রেসের সাংগঠনিক শক্তির অভাবের জেরেই কংগ্রেস শোচনীয় হারের মুখে পড়েছে দিল্লিতে। কাকে দোষী সাব্যস্ত করতে চাইছেন সন্দীপ? সন্দীপ দীক্ষিতের দাবি, বুথ ফেরত সমীক্ষার রিপোর্টই দিল্লির ক্ষেত্রে সত্যি হবে। আর কংগ্রেসের হার নিয়ে এক এক জন এক এক কথা বলবেন । শেষে সবটাই 'ঢাকা' পড়ে যাবে বলে জানিয়েছেন সন্দীপ।
১৯৯৮ সাল থেকে শুরু করে ২০১৩ সাল পর্যন্ত দিল্লিতে ক্ষমতা দখল করে রেখেছিল কংগ্রেস। সেই কংগ্রেস ২০২০ সালের নির্বাচনে কার্যত কোণঠাসা। শাহিনবাগ থেকে সিএএ, জামিয়ায় গুলিচালনা কাণ্ডের মতো একের পর এক ঘটনা দিল্লিতে হয়ে গেলেও সেই সমস্ত ইস্যুকে সঙ্গে নিয়ে লড়াইয়ের ময়দানে কার্যত হাত খালি করেই ঘরে ফিরেছে রাহুল গান্ধীর দল।

No comments

Powered by Blogger.