Header Ads

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দ্বিতীয়বার রাজ্যিক বিজেপি সভাপতি পদে বসলেন রঞ্জিত কুমার দাস


অমল গুপ্ত, গুয়াহাটি : অসমে নাগরিকত্ব  সংশোধনী আইনের ঘোর সমর্থক রঞ্জিত কুমার দাস এবং অর্থমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। সেই সরব সমর্থক রঞ্জিত কুমার দাস পুনরায় বিজেপির রাজ্যিক সভাপতি হিসাবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় বরাক উপত্যকার মানুষ বেশি খুশি। আজ রঞ্জিত কুমার দাস পুনরায় বিজেপি পদে নির্বাচিত হওয়ার পর বিজেপির রাজ্যিক কার্যনির্বাহী সদস্য তথা বরাকের বিজেপি নেতা মিশনরঞ্জন দাস এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, নবনির্বাচিত সভাপতি দাসকে আজ আমন্ত্রণ জানানো হয় করিমগঞ্জে এক সংবর্ধনা সভায় অংশগ্রহণ করার জন্য, তিনি সেই আমন্ত্রন গ্রহণ করে করিমগঞ্জ যেতে রাজি  হয়েছেন। মিশনরঞ্জন বলেন, রঞ্জিত কুমার দাস বরাকে খুবই জনপ্রিয় নেতা, বাঙলা ভাষাতে ভাষণ দেন, তিনি সহজেই সবার সঙ্গে মিশতে পারেন, তার নেতৃত্বে 2021 সালে বিজেপি আবার ক্ষমতা দখল করবে। জানান, চা জনগোষ্ঠীর নেতা সঞ্জয় কৃষাণ মন্ত্রিত্ব পাওয়ায় বরাকের চা বাগানের শ্রমিকরা লাভবান হবেন। কৃষাণ এবং দ্বিতীয় মন্ত্রী আহোম জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধি যোগেন মোহনকে শুভেচ্ছা জানান। আজ কলাক্ষেত্রে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা ধর্মেন্দ্র প্রধান, মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল, অর্থমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মা প্রমুখদের উপস্থিতিতে অসমে প্রায় 42 লক্ষ বিজেপি  সক্রিয় সদস্যের নেতা হিসাবে রঞ্জিত কুমার দাসকে পুনরায় দ্বিতীয়বারের জন্যে সভাপতি হিসাবে নাম ঘোষণা করা হয়। ধর্মেন্দ্র প্রধান সভাপতির ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, তার মতো এক যোগ্য নেতা বিজেপির গর্ব। মুখ্যমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী আশা প্রকাশ করে বলেন, তার নেরত্বে বিজেপি পুনরায় ক্ষমতা দখল করবে। সম্বোধনার জবাবে দাস আশ্বাস আবার বিজেপিকে ক্ষমতায় আনতে সর্বোতভাবে চেষ্টা করবেন। তিনি কা বিরোধী আন্দোলনকারীদের আক্রমণ করে বলেন, শুধু আবেগকে সম্বল করে কোনো আন্দোলন সফল হতে পারে না। দেড় কোটি বাংলাদেশি আসবে বলে মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে, আবেগ ও অপ্রচার ছড়িয়ে কোনো দিন আন্দোলন সফল হয় না। অসম আন্দোলনের কি পরিণতি হয়েছে তা অসমবাসী জানেন। সেই আন্দোলন ও আবেগের ওপর প্রতিষ্ঠিত ছিল। অসম চুক্তির কি পরিণতি হলো? 35 বছরেও এই চুক্তি বাস্তবায়িত হলো না। বিজেপি সরকার ব্যবস্থা  গ্রহণ করছে।

No comments

Powered by Blogger.