Header Ads

শিলাদিত্য দেব প্রাণের পুরুষ নেতাজিকে সন্ত্রাসবাদী বলে অপমান করেছেন : ডাঃ অর্ধেন্দু কুমার দে



অমল গুপ্ত, গুয়াহাটি : বিজেপি বিধায়ক শিলাদিত্য দেব নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুকে দেশের সবচেয়ে বড় সন্ত্রাসবাদী বলে মন্তব্য করে সমলোচনের মুখে পড়েছেন। শুধু নেতাজি নয় ক্ষুদিরাম, বিপিন চন্দ্র পালকেও  সন্ত্রাসবাদী বলেছেন হোজাইয়ের বিধায়ক শিলাদিত্য দেব। হোজাইয়ের কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন মন্ত্রী ডাঃ অর্ধেন্দু কুমার দে আজ সেখানে এক সাংবাদিক সম্মেলনে শিলাদিত্য বাঙলির প্রাণের পুরুষ, মহাত্যাগী দুঃসাহসী নেতাজিকে টেরোরিস্ট বলে সমগ্র বাঙালি জাতিকে অপমান করলেন। তা শিলাদিত্যের পরিবারের মানুষ ও মেনে নেবেন না। ডাক্তার দে-র অভিযোগ মন্ত্রিত্ব না পেয়ে শিলাদিত্য প্রলাপ বকছেন, এতদিন মুসলিম সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে কথা বলতেন, এখন নিজ বাঙালি জাতির বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করছেন। তিনি বলেন, স্বাধীনতা সংগ্রামী বিপিন চন্দ্র পাল সম্পর্কে বিধায়ক কিছুই জানেন না। পাল কলকাতায় মেডিক্যাল কলেজের আগে মেডিক্যাল স্কুল স্থাপন করেছিলেন, সেই স্কুলে অনুকূল চন্দ্র ঠাকুর কিছুদিন পড়াশুনা করেছিলেন, পরে সেই স্কুল মেডিক্যাল হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়, সেই কলেজে অনুকূল চন্দ্রের এক সন্তানও মেডিক্যাল পড়েন বলে ডাক্তার দে জানান। বিধায়ক শিলাদিত্য অনুকূল চন্দ্রের একজন শিষ্য, তাই অনুকূল চন্দ্রের কথা বলে তাকে খোঁচা দিলেন ডাক্তার দে। বরপেটা রোডে শিলাদিত্য বলেন, নেতাজি ছিলেন একজন বড় টেরোরিস্ট, সূর্য সেন, বিপিন চন্দ্র পালরাও ছিলেন সন্ত্রাসবাদী,  বাঙালিরা হাতে কলম ধরতে পারে, দেশের জন্য বন্দুকও ধরতে পারে। তিনি বলেন, বড়ো, মিসিং প্রভৃতি জনগোষ্ঠী নিজেদের মাতৃভাষাতে কথা বলেন, আমরা বাড়িতে বাংলাভাষা বললেও আমাদের অসমীয়া হিসাবে পরিচয় দেওয়া উচিত। শিলাদিত্য 1951 সালের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

No comments

Powered by Blogger.