Header Ads

রত্না থাকলে শোভন নেই ! মমতাকে নাকি বার্তা পাঠিয়েছেন শোভন, জল্পনা বাড়ালেন বৈশাখী !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় 
 
শোভন জল্পনা বাড়িয়েই চলেছেন। যখন বিজেপি ফের তাঁকে গুরুত্ব দিতে শুরু করেছে, তখনই ফের শোভন-বান্ধবী বৈশাখীর সঙ্গে তৃণমূল মহাসচিবের রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বাড়ল জল্পনা। মঙ্গলবার দেড় ঘণ্টা বৈঠক শেষে অবশ্য বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় সাফ জানিয়ে দিলেন, শোভনদাই ঠিক করবেন তিনি কোন দিকে যাবেন, কোন দলে সক্রিয় হবেন। 


তবে একইসঙ্গে বৈশাখী এদিন এ কথাও জানান, শোভনদা কী হলে কী করবেন, তা দলনেত্রীকে জানিয়ে দিয়েছেন। শোভনদা সাফ জানিয়েছেন, রত্নার সঙ্গে তিনি এক মঞ্চে রাজনীতি করবেন না। অর্থাৎ রত্না থাকলে শোভন ফিরবেন না তৃণমূলে। তবে কি বিজেপিতেই সক্রিয় হবেন তিনি? তাও কিন্তু স্পষ্ট নয়।
কেননা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই মিল্লি আল আমিন কলেজের টিচার ইন চার্জের পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে দিয়েছেন। এক মাস আগে সেই ইস্তফা গৃহীত হওয়ার পর এতদিন চুপচাপই বসেছিলেন বৈশাখী। এতদিন পর তিনি কেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করলেন, কেনই বা তিনি দেড় ঘণ্টার বেশি সময় রুদ্ধদ্বার বৈঠক করলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েই যায়।
এই বৈঠক যে নেহাতই সৌজন্য বা ব্যক্তিগত আলাপচারিতা, তা
বলা যাবে না। এই বৈঠকের রাজনৈতিক গুরুত্বও ছিল। শোভন
যে বিজেপিতে গিয়ে সুখে নেই, তিনি তৃণমূলে ফিরতে চান, তা
পূর্বের বহু পদক্ষেপে বোঝা গিয়েছে। এদিনের বৈঠকও সেই প্রভাব মুক্ত নয়। এ অবস্থায় জল্পনা আরও বেড়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ইঙ্গিতে।
পার্থ চট্টোপাধ্যায় এদিন ফের বলেন, শোভন কবে তৃণমূলে ফিরবেন, তা তিনিই জানেন। আর জানে দল। এই ইঙ্গিতপূর্ণ কথার পরই শোভনের তৃণমূলে ফেরার জল্পনা শুরু হয়। সম্প্রতি পুরসভা ভোটের আগে বিজেপিতে তাঁকে সামনে আনার তোড়জোড় শুরু হয়েছে। শোভনকে তলব করেছেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে। শোভন অবশ্য সেই ডাকে সাড়া দেন নি।

No comments

Powered by Blogger.