Header Ads

পিছিয়ে গেল নিৰ্ভয়া কাণ্ডের চার সাজাপ্ৰাপ্তের ফাঁসি

নয়া ঠাহর ওয়েব ডেস্ক --

নিৰ্ভয়া ধৰ্ষকদের ফাঁসি হচ্ছে না ২২শে জানুয়ারি। দিল্লি হাইকোৰ্টে ফের আবেদন করেছে চার ধৰ্ষকের অন্যতম মুকেশ সিং। ২২ জানুয়ারি মৃত্যু পরোয়ানা জারি করা যাবে না। একথা জানিয়েছেন সরকারি আইনজীবীরা। রাষ্ট্ৰপতি প্ৰাণভিক্ষার আৰ্জি খারিজ করে দেওয়ার পরও আরও ১৪ দিন সময় দিতে হবে অপরাধীদের।
ছবি, সৌঃ আন্তৰ্জাল
নিৰ্ভয়া কাণ্ডের চার দোষী বিনয় শৰ্মা, মুকেশ কুমার, পবন গুপ্ত ও অক্ষয় কুমার সিংকে ফাঁসির হুকুম দিয়েছিল নিম্ন আদালত। তারপর হাইকোৰ্ট এবং সুপ্ৰিম কোৰ্টও সেই নিৰ্দেশ বহাল রাখে। এরপর শীৰ্ষ আদালতে রায় সংশোধনের আৰ্জিও খারিজ হয়ে যায়।
দিল্লির বিশেষ আদালতে নিৰ্ভয়ার পরিবারের পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়ের করা হলে সেই মামলার প্ৰেক্ষিতে গত ৭ জানুয়ারি চার দোষীর মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেছিল নিম্ন আদালত। আদালত জানিয়েছিল ২২ জানুয়ারি সকাল ৭ টায় তিহার জেলে চার অপরাধীর ফাঁসি কাৰ্যকর করতে হবে। অন্যদিকে সুপ্ৰি কোৰ্টে রায় সংশোধনের আৰ্জি( কিউরেটিভ পিটিশন) জানিয়েছিল দুই সাজাপ্ৰাপ্ত বিনয় শৰ্মা ও মুকেশ সিং। গতকাল অৰ্থাৎ মঙ্গলবার সেই আৰ্জি খারিজ করে দিয়েছে সুপ্ৰিম কোৰ্ট। এরপর নিম্ন আদালতের মৃত্যু পরোয়ানার বিরুদ্ধে দিল্লি হাইকোৰ্টে মামলা দায়ের করে মুকেশ সিং। সেইসঙ্গে রাষ্ট্ৰপতির কাছে প্ৰাণভিক্ষার আবেদনও করেছে সে। মুকেশের আইনজীবী যুক্তি দেখিয়েছেন, রাষ্ট্ৰপতি প্ৰাণভিক্ষার আৰ্জি মঞ্জুর করতে পারেন। তাই মৃত্যু পরোয়ানা খারিজ করা হোক। মুকেশের আইনজীবীর মতে, আইন অনুযায়ী রাষ্ট্ৰপতি প্ৰাণভিক্ষার আৰ্জি খারিজ করে দেওয়ার পরও ফাঁসির সাজা কাৰ্যকরের জন্য ১৪ দিন সময় দিতে হয়। দোষীদের ইচ্ছা-অনিচ্ছাকে গুরুত্ব দিয়ে মানসিকভাবে তাদের প্ৰস্তুত করার জন্যই এই সময় দেওয়ার আইন রয়েছে। তাই ২২ জানুয়ারি চার সাজাপ্ৰাপ্তের ফাঁসি কাৰ্যকর করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন সরকারী আইনজীবী।

No comments

Powered by Blogger.