Header Ads

উন্নাও ধৰ্ষণ কাণ্ডে কৰ্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে বরখাস্ত ৭ পুলিশ কৰ্মী

নয়া ঠাহর ওয়েব ডেস্কঃ উন্নাও ধৰ্ষণ কাণ্ডে কৰ্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে উন্নাও বিহার থানার স্টেশন হাউস অফিসার অজয় কুমার ত্ৰিপাঠী সমেত ৬ পুলিশ কৰ্মীকে বরখাস্ত করল উত্তরপ্ৰদেশের যোগী সরকার। ধৰ্ষণে অভিযুক্তরা ছাড়া পাওয়ার পরও কেন নিৰ্যাতিতা তরুণীকে নিরাপত্তা দেওয়া হয়নি তা নিয়ে গোটা দেশে উঠেছে প্ৰশ্ন। আগুনে পোড়ার জ্বালা যন্ত্ৰণা, ন্যায় না পাওয়ার যন্ত্ৰণা নিয়ে শুক্ৰবার মাঝরাতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করে ওই তরুণী। 
ছবি, সৌঃ এএনআই

রবিবার দুপুরে উন্নাওয়ের নিজের গ্ৰামেই শেষ কৃত্য সম্পন্ন হয় তরুণীর। তরুণীর পরিবার দাবি করেছিল মুখ্যমন্ত্ৰী যোগী আদিত্যনাথের উপস্থিতিতে তরুণীর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে। কিন্তু মুখ্যমন্ত্ৰী না এলে ক্ষোভের আগুন জ্বলে গ্ৰামবাসীদের মধ্যে। বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন স্থানীয়রা। পরে লখনৌয়ের ডিভিশনাল কমিশনার মুকেশ মেশরম নির্যাতিতার পরিবারকে রাজি করিয়ে শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়।
প্ৰসঙ্গত, ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে উন্নাওয়ের ওই তরুণী ধৰ্ষণের শিকার হয়। তারপর ২০১৯ এর মাৰ্চে পুলিশে মামলা দায়ের হয়। সেই থেকে তরুণী এবং তার পরিবারের লোকজন ন্যায় পাওয়ার আশায় আইন আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। গত বৃহস্পতিবার আদালতে সেই মামলার শুনানি ছিল। আদালতের পথে যাওয়ার সময় তরুণীকে জবরদস্তি টেনে হিঁচড়ে ধানক্ষেতের মধ্যে নিয়ে কেরসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় অভিযুক্তরা। আগুনে ৯০ শতাংশ জ্বলে গিয়েছিল তরুণির। এরপর হাসপাতালে টানা ৪০ ঘন্টা জীবন যুদ্ধ চালানোর পর হার মানে তরুণী। এই ঘটনা নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা দেশকে।

No comments

Powered by Blogger.