Header Ads

গুয়াহাটির ঘটনায় বরপেটা, গোয়ালপাড়া নলবাড়ী র দুষ্কৃতীরা জড়িত ছিল বলে হিমন্ত বিশ্ব শর্মা দাবি করেন।



অমল গুপ্তঃ গুয়াহাটীঃ গুয়াহাটি মহানগরে  স্থানীয় লোক নয়,  বরপেটা, গোয়ালপাড়া, নলবাড়ী  থেকে  দুষ্কৃতীরা এসে ব্যাপক ভাঙচুর, সরকারি   সম্পত্তি বিনষ্ট করেছে। শঙ্কারদেব কলক্ষেত্র  ভাঙচুর করা লোকদের মধ্যে কংগ্রেস দলের লোক ও ছিল।সমস্ত রাজ্যে 136 টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে 190 জন কে গ্রেফতার করা হয়েছে,।  27 জন আহত হয়েছে,4 জন মারা গেছে। ব্যাপক ভাঙচুর ও সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস করার ক্ষেত্রে ছাত্র সংগঠন, আন্দোলনকারীরা জড়িত ছিল না, কোনো  তৃতীয় পক্ষ জড়িত ছিল  বলে অভিযোগ উঠেছে। আজ  মুখ্যমন্ত্রী  কনফারেন্স হলে এক জনাকীর্ণ সাংবাদিক সম্মেলনে  অর্থ মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা একথা জানান। তিনি বার বার বলেন, ক্যাব  বাস্তবায়িত হলে, এক জন মানুষও বাংলাদেশ থেকে আসবে না।  এই আইন অনুযায়ী 2014 সালের 31 ডিসেম্বর  আগে যারা অসমে এসেছে, তাদের মধ্যে মাত্র  5 লাখ 42 হাজার  হিন্দু  বাঙলি মানুষ কেবল নাগরিকত্ব পেতে পারে।  1কোটি দেড় কোটি মানুষ  বাংলাদেশ  থেকে অসমে   ঢুকবে বলে    ভিত্তিহীন কথা বলে, গুজব ছড়িয়ে রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা  বিনষ্ট করার চক্রান্ত করছে বলে মন্ত্রী শর্মা অভিযোগ করেন।  মন্ত্রী দাবি করেন দ্রুতগতিতে শান্তি ফিরে  আসছে।  জানান,  ফেসবুক,  সোশ্যাল সাইটে লাগাতার ভুল বার্তা দিয়ে জনতা ভবনের সামনে জড়ো হওয়া র  নির্দেশ দেওয়া হয়েছে,  অথচ  আসু কেবল লতাশীল ময়দানে  জমায়েতের নির্দেশ দিয়েছিল, গন্ডগোল পাকানোর জন্যে এই সব ভুল ,উস্কানিমূলক বার্তা পাঠানো হয় বলে মন্ত্রীর অভিযোগ । তিনি বলেন   , পর্যায়ক্রমে  কারফিউ  প্রত্যাহার করা হবে,  দুই এক দিনর মধ্যে  ইন্টারনেট  চালু করা হবে। গুয়াহাটি র ব্যাপক সরকারি  সম্পত্তি ধ্বংসের ঘটনায় জড়িত দের   শনাক্ত করা হয়েছে।  এব্যাপারে সরকার উচ্চ পৰ্য্যাযের তদন্ত কমিটি গঠন করবে।9 ডিসেম্বর থেকে 12 ডিসেম্বর পর্যন্ত গুয়াহাটির ঘটনার  কথা তুলে বলেন, শঙ্কর দেব কলাক্ষেত্র র ঘটনায়   সি সি টিভির ফুটেজ এবং জিজ্ঞাসাবাদ  করে 24 জনকে ধরা হয়েছে।  অলকেশ দাস, আসিবুদ্দিন আহমেদ,  ওয়াহিম আলমেদ, নবাব  মবিউল  , জাহাঙ্গীর আহমেদ, নুরবক্স আলী, ইমরান আলী,জড়িত জুবেন আলম কে গ্রেফতার করার চেষ্টা করা হচ্ছে।  এই  ঘটনায় রাজনৈতিক চক্র জড়িত আছে বলে মন্ত্রী দাবি করেন। বলেন, গুয়াহাটির মানুষ শান্তি  বজায় রেখে ছিল।হাতিগাঁও এর ঘটনার পেছনে গভীর  ষড়যন্ত্র ছিল বলে মন্ত্রী জানান। বলেন গণতান্ত্রিক ভাবে যে কোনো সংগঠন আন্দোলন করতে পারে, কোনো বাধা নেই,    আসুর  নেতা সমুজ্জ্বল  ভট্টাচার্য্য  দের  কোর্ট  এরেস্ট করা হয়েছিল,   ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। অখিল গগই কে   এন আই এ গ্রেফতার করেছে চাঁদমারী  থানায় অভিযোগ ছিল।জানান আন্দোলনকারীদের সঙ্গে  সরকার আলোচনার পথ খোলা রেখেছে। তিনি জানান আজ  তিনসুকিয়া তে 12 টা দোকান ঘর জ্বালিয়ে দেবার খবর এসেছে।বলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রীর   সফর বাতিল হয়নি   স্থিগিত রাখা হয়েছে। গুয়াহাটিতে এই  বৈঠক হবে।

No comments

Powered by Blogger.