Header Ads

ভারতের এমন এক মাদ্রাসা, যেখানে পড়ানো হয় সংস্কৃতে, আর ছাত্রদের বোঝানো হয় গীতার প্রকৃত অর্থ !

মোরাদাবাদ : ভারত বৈচিত্র্যপূর্ণ একটি দেশ এবং বৈচিত্র্যে একতা বহু শতাব্দী ধরে এই দেশের পরিচয়। সাম্প্রদায়িক সৌহার্দ্যর মাধ্যমে গোটা বিশ্বকে শান্তির বার্তা দেওয়া ও এই দেশে একে অপরের সন্মান রক্ষা করাই জীবন যাপনের প্রধান লক্ষ্য। মাদ্রাসার নাম শুনলেই সবার মাথায় মুসলিম ধার্মিক শিক্ষার একটি প্রতিষ্ঠানের কথা মাথায় আসে। কিন্তু মোরাদাবাদে এমন একটি মাদ্রাসা আছে, যার কথা শুনে সবাই অবাক হবেন।
ভোজপুরে অবস্থিত এই মাদ্রাসায় সংস্কৃত পড়ানো হয়, আর শ্রীরামচরিতমানস থেকে শুরু করে গীতার শ্লোকের মানে বোঝানো হয় পড়ুয়াদের। ছাত্ররাও সেখানে সংস্কৃতে পড়াশুনায় আগ্রহ দেখায়। মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ এই দেশের ধর্মনিরপেক্ষ সংস্কৃতি জানানোর জন্য এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য এই উদ্যোগ নিয়েছেন।
এই মদ্রাসায় দেড়শ’র অধিক পড়ুয়া শিক্ষা গ্রহণ করে। এখানে সমস্ত বিষয়ে শিক্ষা দেওয়ার সাথে সাথে সংস্কৃতও পড়ানো হয়। এছাড়াও পৌরাণিক গ্রন্থের মাধ্যমে ছাত্রদের শিক্ষা দেওয়া হয়। একদিকে রামচরিতমানস এর মাধ্যমে ভগবান রামের কাহিনী পড়ানো হয়। আরেকদিকে গীতার মাধ্যমে ভগবান শ্রীকৃষ্ণ আর অর্জুন সম্বন্ধে ছাত্রদের জ্ঞান দেওয়া হয়।
দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত এই মাদ্রাসায় পড়ানো হয়। মাদ্রাসার ছাত্রদের জন্য সংস্কৃত পাঠ অবশ্যিক। আর প্রতিদিন এই মাদ্রাসায় বাচ্চাদের সংস্কৃত ভাষায় লেখা শ্লোকের অনুবাদ বোঝানো হয়। বাচ্চাদের দেওয়া এই শিক্ষায় অনেক অভিভাবকও সন্তুষ্ট, আর তাঁরাও তাঁদের বাচ্চাদের এই শিক্ষার জন্য অনুপ্রেরণা দেন !
এই মাদ্রাসার ব্যবস্থাপক সামাজিক সম্প্রীতি তৈরির জন্য এই পদক্ষেপ নিয়েছেন। ওনার মতে, ধার্মিক বিষয়ে জ্ঞান কম থাকার কারণে মানুষের মধ্যে গুজব ছড়িয়ে পড়ে, আর তাঁরা খুব কম সময়ে গুজবের উপরে ভরসাও করে বসে। আর এই জন্য এটা খুব আবশ্যিক যে, ছাত্ররা সমস্ত বিষয়ে জ্ঞাত হোক, আর সমাজে প্রতিষ্ঠিত মানুষ হিসেবে জীবন যাপন করুক !

No comments

Powered by Blogger.