Header Ads

অসমে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান


দেবযানী পাটিকর
ভারতের সিনেমা জগতের সবচেয়ে বিখ্যাত ও জনপ্রিয় অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান ফিল্মফেয়ার। শুধু সিনেমার অভিনয় নয় অস্কারের মতো বলিউড সিনেমার বিভিন্ন শাখায় পুরস্কৃত করা হয় । ১৯৫৪ সাল থেকে এই ফিল্মফেয়ার  অ্যাওয়ার্ড এর যাত্রা শুরু । বলিউডের সবচেয়ে পুরনো ইভেন্ট ফিল্মফেয়ার । জাতীয় পুরস্কারের সমান এই অ্যাওয়ার্ডের স্থান। ৬৫ বছর ধরে এই পুরস্কারের সম্মান একই রকম রয়েছে।

২০২০ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি অসমে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ৬৫ তম ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান। এই প্রথম মুম্বাইয়ের বাইরে হতে চলেছে ফিল্ম ফেয়ার অনুষ্ঠান।এই অনুষ্ঠানে বলিউডের অনেক নামী দামী তারকা উপস্থিত থাকবেন। থাকবেন বহু উদ্যোগপতি ও  ক্রীড়াবিদ। এ সম্পর্কে সোমবার  আসাম পর্যটন উন্নয়ন নিগম আর টাইমস অফ ইন্ডিয়া গ্রুপের সাথে নগরের তাজ ভিভিনতাতে এক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে এদিন পর্যটন নিগমের অধ্যক্ষ জয়ন্ত মল্ল  বড়ুয়া ছাড়াও আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল ,পর্যটনমন্ত্রী চন্দন ব্রাহ্ম  টাইমস অফ ইন্ডিয়া গ্রুপের পরিচালন সঞ্চালক বিনীত জৈন উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে ভাষণে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল বলেন- ১৯৩৫ সালে জয়মতী চলচ্চিত্রের মাধ্যমে জ্যোতিপ্রসাদ আগরওয়ালা অসমিয়া চলচ্চিত্র যাত্রার  সূচনা করেছিলেন।
                                     



সেই থেকে অসমিয়া চলচ্চিত্রের যাত্রা শুরু হয়। বিষ্ণু রাভা, ফনী শর্মা ,ডক্টর ভুপেন হাজারিকা ,নিপ বড়ুয়া ,ব্রজেন বড়ুয়া, মুনিন বড়ুয়া,ভাবেন্দ্র নাথ শইকিয়া, প্রমুখ ব্যক্তিরা  অসমিয়া চলচ্চিত্রকে  এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন। এই সমস্ত বরেণ্য ব্যক্তিদের সাথে অসমিয়া চলচ্চিত্র একটি শক্তিশালী পরিচয় গড়ে তুলতে সক্ষম হয়। অসমের জৈব বৈচিত্র আর প্রাচীন ঐতিহ্য ও সাংস্কৃতিক শৈলী অসমিয়া চলচ্চিত্রের সাথে জড়িত হয়ে আছে। মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন যে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের দ্বারা বিশ্বের ২০০ কোটি মানুষ  অসমের বর্ণাঢ্য সংস্কৃতি ও পর্যটন শক্তিকে দেখতে পারবে। তিনি আরও বলেন- মহাপুরুষ শংকরদেবের সাথে অন্যান্য আধ্যাত্মিক ও ধর্মীয় গুরুদের আদর্শকে বিশ্বের দরবারে প্রতিষ্ঠিত করার সুযোগ পাবে। জুবিন গর্গের কাঞ্চনজঙ্ঘা, যতীন বরার রত্নাকর, রিমা দাস এর বুলবুল ক্যান সিং ইত্যাদি বিভিন্ন চলচ্চিত্র প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন যে অসমে বর্তমানে চলচ্চিত্রর এক  অনুকূল পরিবেশ তৈরি হয়েছে। উল্লেখ্য, ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের টিকিটের থেকে লাভ করা মোট অর্থের ৫০% অৰ্থ অসমের মুখ্যমন্ত্রীর সাহায্য কোষে দেওয়া হবে। এদিনের অনুষ্ঠানে পর্যটন বিভাগের বহু উচ্চপদস্থ আধিকারিক তথা চলচ্চিত্র জগতের সাথে জড়িত বহু শিল্পী উপস্থিত ছিলেন।

No comments

Powered by Blogger.