Header Ads

দেশবন্ধু ক্লাব নকআউট ফুটবল ফাইন্যালে ৫-৪ তে জয়ী লুমছুলুম মেঘালয়

নয়া ঠাহর প্রতিবেদন, বিহাড়া : বিহাড়া দেশবন্ধু ক্লাব নকআউট ফুটবল প্রতিযোগিতার ফাইন্যাল খেলাটি অনুষ্ঠিত হয় শুক্রবার। ফাইন্যাল খেলাটি দেখতে প্রায় পাঁচ হাজার দর্শক জড়ো হয় বিহাড়া যুধিষ্ঠির সাহা স্কুলের মাঠে। ফাইন্যাল ম্যাচ আয়োজিত হয় মেঘালয় লুমছুলুম বনাম জেএফসি ক্লাব কালাইন মহালের মধ্যে। খেলার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত খেলার রাশ ছিল জেএফসি ক্লাব কালাইন মহাল দলের হাতে। তারা অন্ততঃ ১২ বার গোল করার সুযোগ হাতছাড়া করে। মেঘালয় লুমছুলুমের গোলকিপার ইউই মিকি সারতির সুনিপুন অপ্রতিরোধ্য কিপিং খেলার রোমাঞ্চ বাড়িয়ে দেয়। কালাইন দলের প্রতিটি জোরালো শট মেঘালয় লুমছুলুম দলের গোলকিপার ইউই মিকি সারতি প্রতিহত করে অনায়াসে। খেলার নির্দিষ্ট সময়ে উভয়পক্ষের কেউই গোল করতে না পারায় পরবর্তীতে টাইব্রেকারে ৪-৩ গোলে লুমছুলুম মেঘালয় দল জেএফসি ক্লাব কালাইন মহাল দলকে পরাজিত করে ফাইন্যালে বিজয়ীর শিরোপা লাভ করে। 
খেলায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিহাড়া ফাঁড়ী ইনচার্জ লাবন্য বরা, শিক্ষক নিরুপম নাথ,  প্রাক্তন জিপি সভাপতি  ক্ষিতীশ চন্দ্র পাল,বিশিষ্ট ব্যবসায়ী দেবু ঘোষ, কাছাড় জেলা বিজেপি নেতা নিবাস দাস,উত্তর কাটিগড়া জেলাপরিষদ সদস্য তিলকচান্দ দাস, এপি সদস্য নিপু শীল, হানিফ আহমেদ, দেবদুলাল দাস সহ আরও অনেকে। অতিথিরা' প্রতিযোগীদের হাতে পুরস্কার তোলে দেন। খেলায় ম্যাচ রেফারী ছিলেন ওমপ্রকাশ সিং, আলি আকবর সহ অন্যান্যরা। খেলোয়াড়দের গলায় মেডেল পড়িয়ে দেন ক্লাবের সদস্য বিমল দেব ,অপু দাস , ক্লাবের ক্রীড়া সম্পাদক রণেন্দু চক্রবর্ত্তী প্রমূখ। সংবাদ কর্মী মণিশংকর পুরকায়স্থ,মান্তু নাথ ও বনমালী শুক্লবৈদ্যকে উত্তরীয় দিয়ে বিহাড়া দেশবন্ধু ক্লাবের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা  প্রদান করেন অপু দাস। পুরস্কার বিতরণী সভায় পৌরোহিত্য করেন ক্লাব সম্পাদক অজিত রায় চৌধুরী। তিনি দেশবন্ধু ক্লাবের ফুটবল ম্যাচের ইতিহাস   তোলে ধরে জানান এই খেলা ১৯৭৮ সাল থেকে শুরু হয়েছিল। সভা সঞ্চালনা করেন দেশবন্ধু ক্লাবের কার্যকরী সম্পাদক  কানাইলাল ভট্টাচার্য। বিজয়ী দলকে প্রদেয় ট্রফি দাদু প্রয়াত জগদীশ চন্দ্র ঘোষের স্মৃতিতে দান করেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী দেবু ঘোষ। বিজয়ী দল মেঘালয়ের লুমছুলুম দলের হাতে বিজয়ীর ট্রফি তোলে দেন খেলার সম্মানিত অতিথি বিহাড়া ফাড়ী ইনচার্জ লাবন্য বরা ও অপর সম্মানিত অতিথি তথা ট্রফিদাতা দেবু ঘোষ। 
রাণার্সআপ ট্রফি তোলে দেওয়া হয় জেএফসি ক্লাব কালাইন মহাল দলকে। বিজয়ী দলকে নগদ তিরিশ হাজার টাকা ও রাণার্সআপ দলকে নগদ পনেরো হাজার টাকা তোলে দেওয়া হয়। খেলায় উপস্থিত ছিলেন গড়েরভিতর জিপি সভানেত্রী অনামিকা দেবের প্রতিনিধি জয়দীপ দেব। খেলাটি শান্তিপূর্ণ ভাবে চলায় সবাইকে ধন্যবাদ জানান করেন ক্লাবের ক্রীড়া সম্পাদক রণেন্দু চক্রবর্ত্তী।

No comments

Powered by Blogger.