Header Ads

মমতা হিজাব পরলে ধর্মনিরপেক্ষ, নুসরত অঞ্জলি দিলে বিরুদ্ধাচরণ কেন, প্রশ্ন তসলিমার

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : নুসরতের পাশে দাঁড়ালেন লেখিকা তসলিমা নাসরিন। তিনি নুসরতের পাশে দাঁড়াতে গিয়ে উদাহরণ হিসেবে টানলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম। তসলিমার সাফ কথা, অমুসলিম হয়ে হিজাব পরে মমতা আল্লাহর কাছে প্রার্থনা জানালে যদি ধর্মনিরপেক্ষ হন, তাহলে অ-হিন্দু হয়ে পুজো মণ্ডপে অঞ্জলি দিলে দোষ কোথায় নুসরতের।
সম্প্রতি অভিনেত্রী সাংসদ নুসরত জাহানকে নিয়ে বিতর্ক দানা বেঁধেছে। তিনি স্বামী নিখিলকে নিয়ে মা দুর্গার কাছে অঞ্জলি দেওয়ার পর থেকেই ইসলাম মৌলবাদীরা সমালোচনায় মুখর হন। নুসরতের এই অঞ্জলি দেওয়ার বিষয়টি ভালো ভাবে নেননি মুসলিম ধর্মগুরুরা। দেওবন্দের তরফে ফতোয়া জারিও করা হয়।
তারও আগে সিঁদুর ও মঙ্গলসূত্রে পরে নিখিল জৈনের সঙ্গে বিয়ে, তারপর শপথ গ্রহণে তাঁর হিন্দু বধূর সাজ মুসলিম ধর্মগুরুদের কাছে চক্ষুশূল হয়ে যায়। তা সত্ত্বেও সেইসবকে তোয়াক্কা না করে নুসরত ইসকনের রথযাত্রা, রাখিবন্ধন উৎসব ও শেষে দুর্গাপুজোতেও অংশ নেন। দুর্গাপুজোয় অঞ্জলি দিয়ে মৌলবাদীদের তোপের মুখে পড়েন নুসরত।
এই ইসলামি গোঁড়ামির বিরুদ্ধে মুখর হয়ে ওঠেন তসলিমা নাসরিন। নুসরতের হয়ে ময়দানে নেমে তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হিজাব পরে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করলে তো তাঁকে ধর্মনিরপেক্ষ তকমা দেওয়া হয়। তাহলে নুসরতের বিরুদ্ধে অন্যথা হচ্ছে কেন?
এই কথা টুইটার হ্যান্ডেলে লিখে তিনি প্রশ্ন ছুড়ে দেন--নুসরত অ-হিন্দু হয়ে পুজো মণ্ডপে গিয়ে অঞ্জলি দিয়েছে, সেটা ধর্মের বিরুদ্ধাচারণ হচ্ছে বলা হচ্ছে কেন? তসলিমা লেখেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন একজন অ-মুসলিম হয়ে হিজাব পরেন এবং আল্লার কাছে প্রার্থনা করেন তখন তাঁকে ইমামরা ধর্ম নিরপেক্ষ আখ্যা দেন। কিন্তু নুসরত অ-হিন্দু হয়ে পুজো মণ্ডপে গিয়ে অঞ্জলি দিলে সেটা ধর্মের বিরুদ্ধাচরণ বলা হচ্ছে কেন? কেন বলা হচ্ছে নুসরত ইসলামের বদনাম করছেন?

No comments

Powered by Blogger.