Header Ads

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি নিজেই চণ্ডীপাঠ করলেন বাড়ির পুজোয়, চিরাচরিত অভ্যাসকেই প্রাধান্য

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : রাষ্ট্রপতি হয়েও তিনি প্রোটোকল ভেঙে দুর্গাপুজোয় অংশ নিয়েছেন। এখন তিনি প্রাক্তন। তাই সে অর্থে বাধা নেই। কিন্তু প্রতিকূলতা ছিল বয়স। সমস্ত কিছু প্রতিকূলতা দূর করে তিনি নিজে পুজোর আসনে বসলেন। দেবী দুর্গাবন্দনায় মহাষ্টমীর পুজোয় নিজেই করলেন চণ্ডীপাঠ। ফের একবার বাড়ির পুজোয় 'ঘরের ছেলে' হয়ে উঠলেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি।
চিরকাল যা করে এসেছেন, এবারও তার অন্যথা হয়নি। ষষ্ঠীর বিকেলেই তিনি পৌঁছে গিয়েছেন তাঁর মিরিটির বাড়িতে। সপ্তমীর সকালে অবশ্য শারীরিক প্রতিকূলতার কারণে মহাস্নানে প্রত্যক্ষভাবে অংশ নিতে পারেননি। তবে তিনি নবপত্রিকা স্নানের শোভাযাত্রায় অংশ নিয়েছিলেন। তারপর অষ্টমীতে বসলেন পুজোর আসনে। শুদ্ধচিত্তে করেলেন চণ্ডীপাঠ।
প্রতিবছরের এই দিনটা পুরোপুরি অন্য মেজাজে দেখা যায় প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিকে। এবারও তার অন্যথা হয়নি। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে বহু গুরুদায়িত্ব সামলেছেন। কিন্তু পুজো এলে তিনি বাড়ি ফেরেন, এবং নিজে চণ্ডীপাঠ করেন। বিদেশমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী, এমনকী রাষ্ট্রপতি হিসেবে দেশের সাংবিধানিক প্রধানের পদে আসীন হওয়ার পরও তিনি দুর্গাপুজোয় সক্রিয় অংশ নিয়েছেন বরাবর। 
পরণে সাদা ধুতি, গায়ে উত্তরীয়। ধোপদুরস্ত পৌরহিত্যের পোশাকে ভারতের প্রাক্তন ফার্স্ট পার্সন। নিজেই পুজোর আসনে বসে চণ্ডীপাঠ করলেন। তাঁর শুদ্ধ উচ্চারণে পুজো মণ্ডপ তখন গমগম করছে। মিরিট গ্রামে চলছে জমজমাটি মুখোপাধ্যায় বাড়ির পুজো। প্রণব মুখোপাধ্যায় কখন নিজের অজান্তেই হয়ে গিয়েছেন গ্রামের পল্টু। 
১৮৯৬ সালে শুরু হয়েছিল এই দুর্গাপুজোর। প্রণববাবুর দাদু জঙ্গলেশ্বর মুখোপাধ্যায় সন্তান লাভের আশায় স্বপ্নাদেশ পেয়ে শুরু করেন দুর্গা আরাধনা। তারপরই জন্মগ্রহণ করেন প্রণবাবুর বাবা কামদাকিঙ্কর মুখোপাধ্যায়। সেই থেকেই এই পুজো চলে আসছে। সমস্ত ব্যস্ততা সরিয়ে রেখে প্রণববাবু বরাবর বাড়ির পুজোয় উপস্থিত থেকেছেন। মাঝে শুধু এক বছর পুজো বন্ধ ছিল। 
১৯৭২ সালে বন্যার কারণে বন্ধ ছিল মুখোপাধ্যায় বাড়ির দুর্গাপুজো। আর ১৯৫৬ সালে দুর্গাপ্রতিমা ভেঙে যাওয়ায় পুজো হয়েছিল ঘটে। তিনবার প্রণববাবু অংশ নিতে পারেননি। একবার ভারতের হয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘে প্রতিনিধিত্ব করতে গিয়েছিলেন। সেটা ছিল ১৯৯৫ সাল। প্রণববাবু তখন বিদেশমন্ত্রী। 
আর দু-বার নির্বাচনের কাজে ব্যস্ত ছিলেন উত্তরপ্রদেশ ও উত্তর-পূর্ব ভারতে। বাকি সমস্ত বছরেই তাঁর উপস্থিতি ছিল বাড়ির পুজোয়। রাষ্ট্রপতি হওয়ার পরও তিনি সমানে হাজির থেকেছেন পুজোয়। যথারীতি চণ্ডীপাঠ করেছেন দুর্গাদালানে। আজও সেই ধারা বজায় রেখে চলেছেন প্রণববাবু।

No comments

Powered by Blogger.