Header Ads

ভারতরত্ন সুধাকণ্ঠ ৯৩ তম জন্মদিনে শিল্পীকে দেশজুড়ে স্মরণ





দেবযানী পটিকর গুয়াহাটি। ভারতরত্ন সুধাকণ্ঠ ভূপেন হাজারিকা ৯৩ তম জন্মদিনের সাথে সংগতি রেখে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে এই মহান শিল্পীর জন্মদিন উদযাপন করা হয়েছে। জালুকবাড়ী স্থিত সুধাকণ্ঠের সমাধিক্ষেত্রে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত করা হয় এক বিশেষ অনুষ্ঠান ।এর সাথে নিজেরা পারের ভূপেনদার বাসভবনে এক বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অসমের সাথে মায়ানগরী মুম্বাই কলকাতাতেও সুধাকণ্ঠ ভূপেন হাজরিকা জন্ম দিনে তাকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করা হয়।১৯২৬সালের ৮সেপ্টেম্বর শাদিযার একটি গ্রামে এই মহান শিল্পীর জন্ম হয়। বিভিন্ন কালজয়ী গীতের সৃষ্টি কর্তা ভূপেন হাজারিকাকে আসম তথা পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশেও শ্রদ্ধার সাথে পালন করে।রবিবার সকালেই।মুখমন্ত্রী জালুকবাড়ি স্থিত সুধাকণ্ঠ ভূপেন হাজারিকা সমাধি ক্ষেত্রে উপস্থিত হন ।তিনি ভূপেন দার প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করেন।সাথে উপস্থিত ছিলেন সাংস্কৃতিক পরিক্রমা মন্ত্রী নব দলে, সাংসদ কুইন ওঝা,বিধায়ক প্রশান্ত ফুকন কেন্দ্রীয় রাজ্য মন্ত্রী রামেশ্বর তেলি, মুখ্যমন্ত্রীর আইন উপদেষ্টা শান্তনু ভড়ালী ,প্রেস উপদেষ্টা হৃষীকেশ গোস্বামীর সাথে আরো অনেক গণ্য মান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলন 


 উল্লেখ যে ভারতরত্ন ভূপেন হাজারিকার প্রতিকৃতিতে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করে কার্যাক্রমের সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল ।ভূপেন দার।"মানুহে মানুহর বাবে" এই কালজয়ী গানের কথা উল্লেখ করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন যে এই গানটি মানুষের জীবনে প্রেরণা ।সংগীতের দ্বারাই ভূপেনদাএক সুন্দর আসাম নির্মান করার চেষ্টা করেছিলেন। তার এই আদর্শকে সঙ্গী করেই আমাদের চলতে হবে। এরপর মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন হাজারিকার সমাধি ক্ষেত্রে চন্দন গাছের চারা সহিত বিভিন্ন গাছের চারা রোপণ করেন। ওদিকে এয়ারপর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়া উদ্যোগেও বড়ঝাড় স্থিত গোপীনাথ বরদলৈ আন্তরাষ্ট্রীয় বিমানবন্দরের ভূপেন হাজারিকার ৯৩ তম জন্ম দিবস পালন করা হয় ।এই উপলক্ষে অনুষ্ঠানে শিল্পী সদানন্দ গোগই এয়ারপর্ট অথরিটি উত্তরপূর্ব মন্ডলের কার্যকরী সঞ্চালক সঞ্জীব জিন্দাল ,বড়ঝাড় বিমানবন্দরে সঞ্চালক রমেশ কুমার ও অন্য গণ্যমান্য ব্যক্তির উপস্থিত ছিলেন। এই অনুষ্ঠানে বড়ঝাড় স্থিত এয়ারপোর্ট অথরিটির সভাগৃহ টি ভারতরত্ন ডঃ ভূপেন হাজারিকার নামে উৎসর্গ করা হবে বলে ঘোষণা করেন সঞ্জীব জিন্দাল। অন্যদিকে আশুর উদ্যোগে নগরের দিঘলি পুকুরে পালন করা হয় ভূপেন হাজরিকা জন্মজয়ন্তী দিবস। ভারতীয় জনতা পার্টির রাজ্যিক কার্যালয়েও পালন করা হয় ভূপেন হাজারিকার জন্ম ৯৩ তম জন্ম জয়ন্তী উৎসব ।এই উপলক্ষে বিজেপির রাজ্যিক সভাপতি রঞ্জিত দাস বলেন যে ডঃ ভুপেন হাজারিকা নিজের প্রতিভা ও সাধনার দ্বারা আসামকে কেবল ভারতবর্ষেই নয় সমগ্র বিশ্বকে চিনিয়ে দিয়েছিল।ভূপেন দা যদিও আমাদের মধ্যে নেই তথাপি তাঁর গানের দ্বারা তিনি যে বিশ্ব ভ্রাতৃত্ব বোধ জাগিয়ে তুলেছিলেন সেই আহ্বান বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য সবসময় অনুকরণীয় ও অপ্রাসঙ্গিক হয়ে থাকবে।

No comments

Powered by Blogger.