Header Ads

নিস্তেজ বিক্রমকে জাগাতে কোমর বেঁধে নামল 'নাসা', ইসরো-র সঙ্গেই মার্কিনীদের নাছোড় চেষ্টা

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : কোনও খেলার ফাইনাল ম্যাচ নয় ! শুধুমাত্র ভারতের ১৩০ কোটি মানুষের চাঁদ ছোঁয়ার স্বপ্ন সফল হতে দেখবার জন্য গত শুক্রবার মধ্যরাত পর্যন্ত টিভির দিকে অপলক দৃষ্টিতে বসে অপেক্ষা করেছে গোটা ভারত। তবে, শেষ মুহূর্তে ইসরো প্রধান কে সিবনের ঘোষণায় চন্দ্রযান ২ নিয়ে রীতিমতো মুষড়ে পড়েছিল গোটা দেশ। এরপর গত রবিবারই জানা যায় যে চন্দ্রপৃষ্ঠ ছোঁয়ার লক্ষ্যে পৌঁছন বিক্রম এখনও অক্ষত। এরপর থেকে ইসরো-র সঙ্গে কোমর বেঁধে চেষ্টা চালাচ্ছে নাসা-ও।
গত ৭ সেপ্টেম্বর রাতে ইসরো-র পাঠানো চন্দ্রযানের ল্যান্ডার বিক্রম-এর 'সফ্ট ল্যান্ডিং' এর জায়গায় হয়ে যায় 'হার্ড ল্যান্ডিং'। আর তাতেই ঘটে যায় বিপত্তি। বিক্রমের সঙ্গে সেই রাত থেকেই বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় ইসরো-র সম্পর্ক। এরপর , 'বিক্রম'-এর সঙ্গে ফের যোগাযোগ স্থাপন করতে মরিয়া চেষ্টায় ইসরো-র পাশে নেমেছে নাসা-ও।
নাসা-র তরফে তাদের 'ডিপ স্পেস' অ্যান্টেনা-গুলি ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে জোরদার। জানা গিয়েছে, হার্ড ল্যান্ডিং হওয়ার পর থেকে নিস্তেজ হয়ে রয়েছে বিক্রম। আর তার জন্যই ভারতের বিক্রমকে ক্রমাগত জাগিয়ে তোলবার চেষ্টা করে চলেছে নাসার মহাকাশের এই গভীর অ্যান্টেনাগুলি। 'হ্যালো বিক্রম'.. অ্যান্টেনা থেকে বিক্রমের জন্য এমনই বার্তা গিয়েছে। এই সংযোগ একবার রক্ষা করতে পারলেই কেল্লাফতে !
মার্কিন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র 'নাসা' জানিয়েছে, ডিএসএন ২৪ বিম চন্দ্রপৃষ্ঠে বিক্রমকে খুঁজতে তৎপর হয়েছে। এজন্য নাসার-র জেট প্রপালসন ল্যাবরেটরি রীতিমতো মরিয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরো-র পাশে থেকে। পৃথিবীপৃষ্ঠ থেকে 'চাঁদ ধরা'র নাছোড় চেষ্টায় সবরকমের উদ্যোগ নিয়ে ভারতের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন মার্কিনী মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।
এদিকে, ইসরো-র তরফেও কোনও রকমের খামতি রাখা হচ্ছে না ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগের ক্ষেত্রে। যে ল্যান্ডারের মধ্যে রয়েছে রোভার প্রজ্ঞান। চাঁদের দক্ষিণ প্রান্তের দিকে তারা ২.১ কিলোমিটার দূরে পৌঁছনোর পর থেকেই বিক্রমের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন হয় ইসরো-র। মনে করা হয়েছিল যে ল্যান্ডার সম্ভবত নষ্ট হয়ে গিয়েছে। কিন্তু পরে অরবিটারের ছবি জানিয়ে দেয় ভারতের 'বিক্রম' অক্ষত।

No comments

Powered by Blogger.