Header Ads

৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার প্রতিবাদে মহারাজা রণজিৎ সিং-এর প্রতিমা ভাঙচুর পাকিস্তানে

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : জম্মু কাশ্মীর থেকে ভারত সরকার ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার পর থেকে ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তান ক্ষোভে ফুঁসছে। আর এই ক্ষোভের কারণে পাকিস্তানে লাহোর অবস্থিত মহারাজা রণজিৎ সিং-এর প্রতিমা দুই পাকিস্তানি ভেঙে ফেলে। এই ঘটনার পর দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে লাহোর পুলিশ।
১৯ শতাব্দীর শুরুতে উত্তর পশ্চিম ভারতের উপমহাদ্বীপে শাসন করা মহারাজা রনজিৎ সিং-এর প্রতিমা লাহোর কেলায় ওনার ১৮০ তম মৃত্যু বার্ষিকীতে উদ্বোধন করা হয়েছিল। মহারাজা রণজিৎ সিং ১৮৩৯ সালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। পিতলের এই প্রতিমাতে মহারাজা রণজিৎ সিং শিখদের পোশাকে হাতে তলোয়ার নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন।
এই ঘটনার পর পুলিশ দুজনকে গ্রেফতার করেছে, আর ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার জন্য তাদের দুজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। জম্মু কাশ্মীর থেকে বিশেষ রাজ্যের তকমা ছিনিয়ে নেওয়ার পর থেকেই চরম ক্ষোভে ফুটছে গোটা পাকিস্তান। একদিকে সমঝোতা এক্সপ্রেস সমেত লাহোর দিল্লীর বাস বন্ধ করে দিয়েছে পাকিস্তান, আরেকদিকে ভারতের সাথে ব্যাবসা বন্ধ করে দিয়েছে তারা। যদিও ভারতের ক্ষতি না হয়ে এই সিদ্ধান্তে পাকিস্তানেরই বেশি ক্ষতি হয়ে গেছে। পাক সরকারের এই সিদ্ধান্তের পর পাকিস্তানের সবজি বাজার এখন আগুন। সব জিনিসের দাম আকাশ ছোঁয়া। সামনে ঈদের বাজার করার জন্য হা-পিত্যেশ করছে পাকিস্তানিরা।
জম্মু কাশ্মীর থেকে বিশেষ রাজ্যের তকম কেড়ে নেওয়ার পর পাকিস্তানের দুই কট্টরপন্থী মহারাজা রণজিৎ সিং এর মূর্তিতে হামলা চালানো ধৃত দুই অভিযুক্ত পাকিস্তানের কট্টরপন্থী সংগঠন তহরিক-লব্বেক পাকিস্তানের সদস্য বলে জানা যায়।
লাহোর কেল্লার মুখপাত্র জানান, ‘এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। ভবিষ্যতে যাতে এমন আর না হয়, তার জন্য আমরা লাহোর কেল্লার সুরক্ষা বাড়াব। মূর্তির মেরামতির কাজ আগামী সপ্তাহে শুরু হবে। মেরমতি শেষ হলেই, প্রতিমাকে আবার জনতার দর্শনের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

No comments

Powered by Blogger.