Header Ads

জম্মু-কাশ্মীরে পুনরায় বলবৎ হোক ৩৭০, এই দাবি নিয়ে আদালতে পৌঁছেছিল রবার্ট ভাদ্রার আত্মীয়, ধমক দিল আদালত !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়
 
জম্মু-কাশ্মীর থেকে ভারত সরকার ধারা ৩৭০ বিলুপ্ত করে দিয়েছে। কিন্তু এই ইস্যুতে বিতর্ক থামছে না। একের পর এক আপত্তিজনক মন্তব্য লাগাতার উঠে আসছে। ভারতের বিরুদ্ধে যত আক্রমণ হয় তার যোগসূত্র পাকিস্তান বা কংগ্রেসের সাথে কোনো না কোনো ভাবে জুড়েই যায় বলে অভিযোগ সামনে এসেছে। ৫ আগস্ট ভারত সরকার অনুচ্ছেদ ৩৭০ জম্মু-কাশ্মীর থেকে সরিয়ে দেয় ও দুটি কেন্দ্র শাসিত প্রদেশ বানিয়ে দেয়। জম্মু কাশ্মীরে এখন পুরোপুরি ভারতীয় সংবিধান আর জাতীয় পতাকা যুক্ত হয়ে গেছে। কিন্তু কংগ্রেসের এই পদক্ষেপ পছন্দ হয়নি। কাশ্মীরের কট্টরপন্থী হোক কিংবা পাকিস্তান হোক কিংবা কংগ্রেস বা তার সহযোগী হোক, ভারতের সঙ্গে কোন ভালো পদক্ষেপ এনাদের পছন্দ হয় না বলে অভিযোগ সামনেে উঠে আসছে।


কারণ ধারা ৩৭০ কে ভারত সরকার সংবিধানসম্মতভাবেই তুলে দেওয়ায় রবার্ট বাড্রা’র একজন আত্মীয় সুপ্রিম কোর্টে ছুটে গেছেন। সরকারের সিদ্ধান্তকে বাতিল করে পুনরায় জম্মু কাশ্মীরে ৩৭০ অনুচ্ছেদ বলবৎ করা হোক, এই দাবিতে আদালতে হাজির হয়েছিল রবার্ট, প্রিয়াঙ্কা ভাদ্রার এক আত্মীয়। গান্ধী পরিবার ও ভাদ্রার ঘনিষ্ঠ আত্মীয় আদালতে গিয়ে সরকারের ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন। যার জন্য অনেকে কংগ্রেসকে দেশ বিরোধী, পাকিস্তানের সাথে সংযোগ আছে ইত্যাদি বলে মন্তব্য করেছেন।
রবার্ট ভাড্রার একজন বোন আছে যার নাম মনিকা বাড্রা, তার স্বামী যার নাম তহেসীন পুনাওয়ালা--এই ব্যক্তি সুপ্রিম কোর্টে ভারত সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আবেদন করে আর দাবি করে যাতে জম্মু কাশ্মীরে আবার ধারা ৩৭০ বলবৎ করা হয়। তহেসীন পুনাওয়ালার আবেদনটি সুপ্রিম কোর্ট দেখে এবং তাকে একটা বড়ো ধমক দেয়। আদালত ওই ব্যক্তিকে বলে--আপনি কে ! সরকারের উপর ভরসা করুন, এটি সংবেদনশীল মামলা, আমরা এর উপর কোনো শুনানি করতে পারি না।

No comments

Powered by Blogger.