Header Ads

শেষবার ১৯৬৪ সালে কাশ্মীর নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদে কী আলোচনা হয়েছিল?

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদে কাশ্মীর নিয়ে রুদ্ধদ্বার আলোচনা চলছে। কারণ পাকিস্তান নিরাপত্তা পরিষদে এই নিয়ে আলোচনার দাবি জানিয়েছে। রাষ্ট্রপুঞ্জের হস্তক্ষেপ চেয়েছে। ১৯৬৪ সালে শেষবার নিরাপত্তা পরিষদে কাশ্মীর নিয়ে আলোচনা হয়েছিল। তারপরে গত পাঁচ দশকে আর আলোচনা হয়নি।
১৯৬৪ সালের ১৬ জানুয়ারি শেষবার রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদে 'দ্য ইন্ডিয়া-পাকিস্তান কোয়েশ্চেন' শীর্ষক অ্যাজেন্ডা নিয়ে আলোচনা হয়। সেবারও পাকিস্তান নিরাপত্তা পরিষদের কাছে আহ্বান জানিয়েছিল। কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদার বিরুদ্ধে পাকিস্তান আবেদন জানিয়েছিল। এবারও চিনের আবেদনের পর ফের নিরাপত্তা পরিষদের প্রেসিডেন্টকে চিঠি লেখে পাকিস্তান। 
কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ করে এই প্রদেশকে দুটি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভেঙে দিয়েছে ভারত। একদিকে জম্মু-কাশ্মীর ও অন্যদিকে লাদাখকে রাখা হয়েছে। যা নিয়ে পাকিস্তান সারা বিশ্বের কাছে কাঁদুনি গাইছে। যদিও ভারত স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, এটি সম্পূর্ণভাবে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। ফলে পাকিস্তান কী বলল তাতে কিছু যায় আসে না। 
শুধু পাকিস্তানকে নয়, চিন সহ সারা বিশ্বকে ভারত জানিয়েছে, কাশ্মীরের রদবদল অভ্যন্তরীণ বিষয়। এই নিয়ে কারও কোনও কথা বলার অধিকার নেই। কারণ কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। রাষ্ট্রপুঞ্জ পাকিস্তানের আবেদনে সাড়া দেয় নি--কাশ্মীর বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে নি।

No comments

Powered by Blogger.