Header Ads

কার্বি-আংলং ও ডিমা হাসাওকে নিয়ে পৃথক স্বশাসিত রাজ্য গঠনের দাবির সফল রূপায়ণে অধিক গুরুত্ব দেওয়ার আশ্বাস সাংসদ হরেন সিং বে-র


বিপ্লব দেব, হাফলংঃ অসমের অন্যতম পাহাড়ি জেলা কার্বি-আংলং ও ডিমা হাসাওকে নিয়ে পৃথক স্বশাসিত রাজ্য গঠনের দাবিকে আরও বেশি গুরুত্ব দেওয়া হবে বলে মন্তব্য করেন ডিফু লোকসভা কেন্দ্ৰ থেকে নব নির্বাচিত বিজেপি সাংসদ হরেন সিং বে। কার্বি-আংলং জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক বৈঠকে সাংসদ হরেন সিং বে বলেন- সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর তাঁর প্রথম কাজই হবে কার্বি-আংলং ও ডিমা হাসাও জেলাকে নিয়ে ভারতীয় সংবিধানের ২৪৪ (ক) অনুচ্ছেদ অনুসারে পৃথক স্বশাসিত রাজ্য গঠনের দাবীর সফল রুপায়ণ করা। কার্বি-আংলং ও ডিমা হাসাও জেলার বিভিন্ন দল সংগঠন সাধারণ নাগরিকদের দীর্ঘদিনের দাবি পৃথক স্বশাসিত রাজ্য। এনিয়ে অসমের এই পাহাড়ি জেলা দুটিতে বিভিন্ন দল সংগঠন পৃথক স্বশাসিত রাজ্য গঠনের দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। তাই পৃথক স্বশাসিত রাজ্য গঠনের দাবিকে তিনি অধিক গুরুত্ব দেবেন বলে বৃহস্পতিবার  তাঁর সরকারি বাসভবনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল সংগঠন সহ পৃথক স্বশাসিত রাজ্যের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া দল সংগঠনের প্রতিনিধিদের আশ্বস্ত করে বলেন সাংসদ ভবনে পৃথক স্বশাসিত রাজ্যের দাবি নিয়ে তিনি সংসদ ভবনে সরব হবেন। যাতে পৃথক স্বশাসিত রাজ্যের এই দীর্ঘদিনের দাবির যাতে সফল রূপায়ণ হয় এটাই প্রথম লক্ষ্য থাকবে বলে উল্লেখ করেন বিজেপির সাংসদ হরেন সিং বে। উল্লেখ্য, ৮০-র দশক থেকে কার্বি-আংলং ও ডিমা হাসাও জেলাকে নিয়ে সংবিধানের ২৪৪(ক) অনুচ্ছেদ অনুসারে পৃথক স্বশাসিত রাজ্যের দাবিতে দুটি পাহাড়ি জেলার বিভিন্ন দল সংগঠন আন্দোলন করার পাশাপাশি অনেক শসস্ত্র আন্দোলন হয়ে আসলেও এনিয়ে কেন্দ্রের কোনও সরকারই পৃথক স্বশাসিত রাজ্যের দাবি নিয়ে তেমন গুরুত্ব দেয়নি বলে অভিযোগ। তাই এবার ডিফু লোকসভা আসন থেকে নব নির্বাচিত বিজেপির সাংসদ হরেন সিং বে পৃথক স্বশাসিত রাজ্য গঠনের দাবি নিয়ে সংসদ ভবনে সরব হবেন বলে দুটি পাহাড়ি জেলার সাধারণ নাগরিক সহ বিভিন্ন দল সংগঠনকে আশ্বস্ত করেন।

No comments

Powered by Blogger.