Header Ads

বরাক ও ব্ৰহ্মপুত্ৰের দুৰ্নীতিতে মুখ্যমন্ত্ৰীর কড়া পদক্ষেপ

নয়া ঠাহর প্রতিবেদন, বদরপুরঃ পড়শী রাজ্য মেঘালয়ের কয়লাকে কেন্দ্র করে অবৈধ কয়লা বাণিজ্য চক্র সক্রিয় বরাক উপত্যকায়। সরকারি নিয়ম নীতিকে উপেক্ষা করে নানা ফর্মুলায় পাহাড়ি রাজ্য থেকে কয়লা ঢুকছে বরাকে। দিগরখাল, কালাইন ও কাটিগড়া পুলিশ রাস্তায় থাকলেও বিনা বাঁধায় কয়লা বোঝাই লরি গেট পেরিয়ে আসছে বদরপুরে। কার্যত ঠুটো জগন্নাথ কাছাড় ও করিমগঞ্জ প্রশাসন বলে অভিযোগ উঠেছে। যার বড় প্রমাণ পনেরো দিনের মধ্যে প্রায় বারোটি কয়লা বোঝাই লরি পুলিশ আটক করেছে বদরপুরে। বরাক উপত্যকায কয়লা সিন্ডিকেট বেশ মাথা নাড়া দিয়ে উঠেছে। 
ছবি, সৌঃ আন্তৰ্জাল
এই সিণ্ডিকেটের মাধ্যমে প্রতিদিন কোটি কোটি টাকার অবৈধ কয়লার ব্যবসা চলছে। এবার অবৈধ কয়লা সিন্ডিকেট নেটওয়ার্ক ও বেশ শক্তিশালী বলে খবর পাওয়া গেছে। জানা গেছে এই অবৈধ কয়লা অর্থাৎ কালো সোনা কারবারিদের পেছনে কিছু নেতা এবং তিন জেলার কিছু উচ্চ পদস্থ পুলিশ কর্তার মদত রয়েছে। যার কারণে সরকার অনেক চেষ্টা করেও এই অবৈধ কয়লা ব্যবসা বন্ধ করতে ব্যর্থ হচ্ছে। এটাই কি দুর্নীতি মুক্ত সরকারের চেহারা? এই প্ৰশ্নই এখন উঠছে সচেতন মহলে। প্রশ্ন হচ্ছে বরাকের তিন জেলা পুলিশ প্রশাসন যদি এই অবৈধ কয়লা ব্যবসা প্রতিরোধে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে থাকেন।

                                                  প্ৰতীকী ছবি, সৌঃ ডিওয়াই৩৬৫
তবে অবৈধ কয়লা বোঝাই অসংখ্য লরি জাতীয় সড়ক দিয়ে চলে কি ভাবে। সাধারণ মানুষের মনে এখন এই প্রশ্ন উকি মারছে। এমন প্রশ্ন ও উঠছে যে, অবৈধ কয়লা বোঝাই ট্রাক গুলো রাতাছড়া পার হওয়ার পর ঢুকে যায় কাছাড় জেলায়, সেখানে রয়েছে দিঘরখাল গেট। তারপর গুমড়া কালাইন, কাটিগড়া থানা এতো পথ পেরিয়ে বদরপুর আসার পর কিছু কয়লাবাহি লরি পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। তাই স্বাভাবিক ভাবে প্রশ্ন ওঠে গুমড়া, কালাইন, কাটিগড়া পুলিশ এই সব অবৈধ কয়লার ট্রাক গুলো কি দেখতে পায় না? একটি মহলের মতে নগদ নারায়ণের লোভে একাংশ থানার পুলিশ দেখেও না দেখার ভান করে। শুধু তাই নয়, পুলিশের সাথে মোটা অঙ্কের লেনদেনের মাধ্যমে এই অবৈধ কয়লা বোঝাই ট্রাক গুলো দীর্ঘ পথ অতিক্রম করে আসতে সক্ষম হয় বলে ও অভিযোগ উঠেছে। 
বদরপুরঘাট থেকে করিমগঞ্জ জেলায় অবৈধ কয়লার ট্রাক ঢুকে বিভিন্ন জায়গায় কি ভাবে যায় তা নিয়েও প্ৰশ্ন উঠেছে। বদরপুর পুলিশ সন্দেহের তালিকায় থাকলেও বিভিন্ন সময়ে অবৈধ কয়লা বোঝাই ট্রাক আটক করছে বদরপুর পুলিশ। গত কাল রাতে ও বদরপুর থানার ওসি জে কে বরা একটি অবৈধ কয়লা বোঝাই লরি আটক করেছেন। লরিটির নম্বর হল, এএস ১১ ডিসি ১৭৫৫, জানা গেছে এই দুটি ট্রাকের কয়লার সাথে কাগজ পত্রের কোন সামঞ্জস্য নেই। কোন কিছু ঠিক নেই দেখে বদরপুর পুলিশ কয়লা বোঝাই ট্রাক দুটি আটক করেছে। প্ৰসঙ্গত, রাজ্যে যে কোনও ধরনের দুৰ্নীতি সহ্য করা হবে না , তা যদি শাসক দল বিজেপির কৰ্মীও হয়ে থাকে ছাড় পাবে না বলে মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সনোয়াল। বরাক ব্ৰহ্মপুত্ৰ উপত্যকায় যে কোনও দুৰ্নীতির অভিযোগে কড়া পদক্ষেপ গ্ৰহণ করা হবে বলে অঙ্গিকার করেছেন তিনি। দুৰ্নীতি মুক্ত অসম গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।  

No comments

Powered by Blogger.