Header Ads

অসমে এনআরসি-র নামে চরম হেনস্থার শিকার হচ্ছে হিন্দু বাঙালিরা, তা খুবই দুৰ্ভাগ্যজনক বলে আখ্যা দিল রাজ্যের বাঙালি সংগঠনগুলি

 

নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, নয়াদিল্লিঃ  অসমে এনআরসি-র নামে চরম হেনস্থার শিকার হচ্ছে হিন্দু বাঙালিরা। সারা অসম বাঙালি যুব ছাত্ৰ ফেডারেশন, বৃহত্তর অসম বাঙালি উন্নয়ন সমিতি, শহিদ কনকলতা মহিলা উন্নয়ন সমিতি এবং আরসিসি অব বেঙ্গলি টাইগার ফোৰ্স রাজ্যিক সমিতির পক্ষ থেকে সোমবার নয়াদিল্লিতে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই অভিযোগ তোলা হয়। এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে আরও বলা হয় অসমে ৯৫ শতাংশ হিন্দু বাঙালির ভোটে শাসনে এসেছে যে বিজেপি সরকার সেই বিজেপি সরকারের আমলেই বাঙালি হিন্দুদের নিৰ্যাতনের শিকার হতে হচ্ছে তা খুবই দুৰ্ভাগ্যজনক। এনআরসির নামে হেনস্থার শিকার হচ্ছে হিন্দু বাঙালিরা। তার জন্য এদিন এনআরসি কৰ্তৃপক্ষের তীব্ৰ নিন্দা করেছেন ফেডারেশনের সদস্যরা। এনআরসিতে শুনানির নামে ধুবড়ির বাঙালিদের শদিয়া এবং শদিয়ার বাঙালিদের ধুবড়িতে ডেকে পাঠিয়ে তাদের শারীরিক, মানসিক এবং আৰ্থিকভাবে হেনস্থা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন সংগঠনগুলির সদস্যরা। এনআরসি-র দ্বিতীয় তথা অন্তিম খসড়ায় নাম অন্তৰ্ভুক্তির পরও ঠিকানাহীন অভিযোগকারীকে শুনানির দিন স্ব-শরীরে উপস্থিত থাকার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন সংগঠনগুলির সদস্যরা। তা না হলে বিষয়টিকে ষড়যন্ত্ৰ বলে ভাবা হবে বলে মত প্ৰকাশ করেছেন সংগঠনগুলির সদস্যরা।এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে একাংশ বাঙালি বুদ্ধিজীবীর চলো পাল্টাই ২০২১ শীৰ্ষক অভিযানের তীব্ৰ সমালোচনা করা হয়। তাদের মতে এই ধরনের কার্যকলাপে অসমিয়া এবং বাঙালি জাতির মধ্যে সংঘাত সৃষ্টি হবে এবং চারপাশে অস্থিরতার পরিবেশ সৃষ্টি হবে। যা সমাজের সামগ্ৰিক উন্নতির পথে বাধা হয়ে দাঁড়াবে। 



No comments

Powered by Blogger.