Header Ads

‘চলো পাল্টাই’ স্লোগানের তীব্র বিরোধীতায় সারা আসাম বাঙালি ঐক্য মঞ্চ



নয়া ঠাহর প্রতিবেদন ,গুয়াহাটিঃ সারা আসাম বাঙালি ঐক্য মঞ্চের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হলেন সুবল পাল ।ঐক্য মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে শান্তনু মুখার্জিকে অব্যাহতি দেওয়ার বিষয়ে সভাপতি হিমাদ্রী রায়ের সিধান্তকে ঐক্য মঞ্চের অনুমতি দেবার পর সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচন করা হলো সুবল পালকে। এই বিষয়টি ছাড়াও পান্ডুতে নবজাগৃতি সংঘে অনুষ্ঠিত সারা আসাম বাঙ্গালি ঐক্য মঞ্চের কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় ‘চলো পাল্টাই ’স্লোগান এর তীব্র বিরোধিতা করা হয়। এর সঙ্গে যুক্ত লোকেরা যাতে সমাজে সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প ছড়াতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখার জন্য জনসাধারণের প্রতি আহ্বান জানানো হয় । এছাড়াও নাগরিক পঞ্জিকরনের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ নিয়ে যাতে সমাজে কোন ধরনের ভীতি বা শঙ্কা না ছড়ায় সে বিষয়ে জনগণকে সচেতন করার জন্য ঐক্য মঞ্চ নেতাকর্মীদের আহ্বান জানায় । এ বিষয়ে ঐক্য মঞ্চের সদস্যরা বলেন যে "চলো পাল্টাই" স্লোগান তুলে যাতে বিভাজনের রাজনীতি করতে চায় বা সমাজে অশান্তি ছড়াতে চায় সচেতন জনগণ তাদের কখনো ছেড়ে কথা বলবে না তারা বলেন যে আসামে বসবাস কারি বাঙালিরা আসাম এর জল,আবহাওয়া ,ভাষা ,সংস্কৃতি কৃষ্টিকে  আপন করে নিয়েছে ।আসামে স্থানীয় লোকদের সঙ্গে বাঙ্গালীদের আত্মীয় সম্পর্ক গড়ে উঠেছে।  এই প্রথা নিয়ে যারা "চলো পাল্টাই "এর মতো সাম্প্রদায়িকতা ও স্লোগান তুলে সমাজে সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প ছড়াতে চায় বাঙালি সমাজ থাকে তাদের কখনো ক্ষমা করবে না। এদিকে নাগরিক পঞ্জি নবায়নের প্রক্রিয়র চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ এর চূড়ান্ত দিন এগিয়ে এলে বাঙালি বিভ্রান্ত না হয় ভীতি বা সংখ্যা  না করেন এই আহ্বান করেন ঐক্য মঞ্চের সদস্যরা। রাজ্য কমিটির সভাপতি হিমাদ্রি রায়  এক বিবৃতিতে  বলেন যে চূড়ান্ত তালিকায় প্রকৃতি ভারতীয় লোকদের নাম  নথিভূক্ত না হলে নিকটস্থ ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে নাগরিকপঞ্জিতে নাম অন্তর্ভুক্ত করার আবেদন জানিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে মামলা করতে পাররেন । এভাবে ন্যায়বিচার পাওয়ার পথ প্রশস্ত করা হবে ।  এ বিষয়ে প্রশাসনের বিরুদ্ধে অযথা হয়রানি করার যে অভিযোগের তোলা হয়  এ ধরনের সমস্যা থেকেও রেহাই পাওয়া যাবে । এই সভায় গৃহীত আরো একটি প্রস্তাব যে আগামী ১৪ ই জুন ঐক্য মঞ্চের নেতাকর্মীরা শিলচরের সংসদ রাজদীপ রায়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে হিন্দু বাঙালি নাগরিকত্ব সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে সুস্থ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তাকে আহ্বান জানাবে। এ দিনের ঐক্য মঞ্চের অন্যতম সভাপতি দীপঙ্কর দাস কে সংবিধানের প্রস্তুত কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ করা হয় এবং নারায়ণ সরকারকে ঐক্য মঞ্চের মুখপাত্র হিসেবে নির্বাচিত করা হয় । ঐক্য মঞ্চের 1কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা সুশীল দত্ত, নিখিল দাস ,ঐক্য মঞ্চএর রাজ্য সভাপতি হিমাদ্রি রায় ,কার্যকর সভাপতি হরি গোস্বামী, উপ সভাপতি সুব্রত শর্মা ও দীপঙ্কর বস কোষাধক্ষ্য প্রদীপ নাথ, সাংগঠনিক সম্পাদক বেনু গোপাল দাস ,উত্তম দাস, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ফুলেশ্বরী পাল ,মুখপাত্র সাংবাদিক দেবযাানী পাটি কর   তপন সেন ,সাংস্কৃতিক সম্পাদক কাঞ্চন দাস , নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক সুবল পাল সহ আরো অনেকে। এ দিনের সভার শুরুতে  নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ছবিতে পুষ্পার্ঘ নিবেদন করে তাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে সভার  কাজ শুরু করেন ঐক্য মঞ্চের উপদেষ্টা নিখিল দাস।

No comments

Powered by Blogger.