Header Ads

আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্ৰণে কেন্দ্ৰকে জানাল রাজ্য

ছবি, সৌঃ ক্যালকাটা নিউজ
নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, কলকাতাঃ বাংলায় ভোট পরবৰ্তী রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে সোমবার সকালে নয়াদিল্লিতে প্ৰথমে প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদি এবং পরে স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্ৰিপাঠি। ৪০ মিনিটের এই বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল রাজ্যের আইন শৃংঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে একটি রিপোৰ্ট দিয়েছেন। সন্দেশখালির ব্যাপারে প্ৰধানমন্ত্ৰীর কাছে যা জানানোর জানিয়ে এসেছেন সংবাদ মাধ্যমে জানান রাজ্যপাল। এদিকে তৃণমূল অভিযোগ তুলেছে রাজ্য নিয়ে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্ৰ চলছে। পুলিশকে আরও কড়া হওয়ার নিৰ্দেশ দিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্ৰী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন তিনি নবান্নে দলীয় কৰ্মীদের নিয়ে বৈঠক করেন। পুলিশের কিছু কিছু ওসি এসআই ভাল কাজ করছেন না, খবর নেওয়া হচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা করতে প্ৰশাসন যে পিছ পা হবে না তা এদিন তিনি ঠারেঠোরে বুঝিয়ে দেন। ৮ বছরের কাজের পৰ্যালোচনা করতে নবান্নে বৈঠকে বসেন তিনি। এদিন তিনি বিজেপি নেতাদের হুঁশিয়ারী দিয়ে বলেন, মৃত বাঘের থেকে আহত বাঘ বেশি ভয়ঙ্কর। মুখ্যমন্ত্ৰী এদিন বিজেপিকে তোপ দেগে বলেন মাথা কেটে নেব, খুন করে দেব এসব মন্তব্য রাজনীতিকদের মুখে মানায় না। সরকার ফেলে দেওয়ার চক্ৰান্ত করছে বিজেপি এই অভিযোগ তোলেন মুখ্যমন্ত্ৰী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে এদিন উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাটের সন্দেশখালিতে বিজেপি কৰ্মীর খুনের প্ৰতিবাদে বিজেপির ডাকা ১২ ঘন্টা বনধে থমথমে ছিল গোটা এলাকা। স্কুল কলেজ দোকান পাট সমস্ত কিছুই বনধ ছিল। বনধে বিপৰ্যস্ত হয় স্বাভাবিক জনজীবন। রাজ্যে কালা দিবসের ডাক দেয় বিজেপি। বাসন্তি হাইওয়েতে বিজেপি সমৰ্থকজের অবরোধে বিপৰ্যস্ত হয় যান চলাচল। সন্দেশখালির পরিস্থিতির দিকে কড়া নজর রাখছে নবান্ন। সেখানে ২ বিজেপি কৰ্মীর মৃত্যু এবং একজনের নিখোঁজের প্ৰতিবাদে রাজ্যজুড়ে কালা দিবস পালন করে বিজেপি। দলের নেতা কৰ্মীরা এদিন মমতার কুশপুতুল দাহ করে। মোদ্দা কথা লোকসভা ভোটের পর থেকে কেন্দ্ৰ এবং রাজ্যের মধ্যে সংঘাত ক্ৰমশ চলছেই। এই পরিস্থিতিতে বাংলার রাজনৈতিক হিংসার পরিবেশ কোথায় গিয়ে থামবে তা নিয়ে চিন্তার ভাজ পড়েছে সচেতন মহলে। 

No comments

Powered by Blogger.