Header Ads

গোয়ালপাড়া জেলাতে ১৫ বিঘা জমিতে ডিটেনশন ক্যাম্প নির্মাণের কাজ চলছে ৩ হাজার বন্দিকে রাখা হবে


অমল গুপ্তঃ গুয়াহাটি
সারা ভারতে নেই , একমাত্র অসমে জার্মানির মতো নাগরিকদের শাস্তি দেওয়ার মতো জেল আছে। যাকে ডিটেনশন  ক্যাম্প  বলা হয়। এই ক্যাম্পগুলোর নিরপরাধী বাঙালিদের বন্দি করে রাখা হয়েছে। অপরাধ, তারা নাকি সব বিদেশি, কিন্ত বিভিন্ন তথ্য বলছে, ৯৯ ভাগ বন্দি ভারতীয়, এক পক্ষ ভাবে   দারিদ্র পরিবারগুলোকে বিদেশি তকমা দিয়ে শাস্তি দেওয়া হচ্ছে বলে বিভিন্ন অভিযোগ । এর পরেও  প্রায় প্রতিদিন বাঙালিদের গ্রেফতার করে ডিটেনশন ক্যাম্পে সরকার  পাঠাচ্ছে। শনিবার দিসপুর প্রেস ক্লাবে  সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে  সারা  অসম বাঙালি যুব ছাত্র  ফেডারেশনের  সভাপতি দীপক দে   এই অভিযোগ  করে বলেন, এ পর্যন্ত প্রায় ২৫ জন নিরপরাধ মানুষকে ধরা হয়েছে।  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি অসমে এসে অংগীকার করে ছিলেন। অসমের  সব ডিটেনশন ক্যাম্প গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে। মোদি সেই প্রতিশ্রুতি রাখতে পারেননি। বরং বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর ডিটেনশন  ক্যাম্পের সংখ্যা বেড়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার অসমে নতুন করে ডিটেনশন ক্যাম্প নির্মাণ করছে অসমের গোয়ালপাড়া  জেলায় সেখানের মাটিতে ১৫ বিঘা জমিতে  ক্যাম্প নির্মাণ চলছে। ৩০০০ জন  বন্দিকে রাখা  হবে। সরকার সূত্রে একথা  জানা গেছে।সুপ্রিম  কোর্টের কড়া অবস্থানের পর রাজ্যে ধর পাকর বেড়ে গেছে। ১৯৮৫ থেকে ২০১৮ সালের  মার্চ  অবধি  ৯১,৬০৯ জন ঘোষিত বিদেশির মধ্যে ৭২,৪৯৬ জন   নিরুদ্দেশ।  তাদের খুঁজে বার করে  ডিটেনশন ক্যাম্প পাঠনোর  নির্দেশ   এসেছে।  কংগ্রেস  সরকার ১৯৯৭ সালে ডিটেনশন ক্যাম্প সূচনা করে বিষবৃক্ষ রোপন করেছিল। আজ বাঙালিরা ভুগছে। ফেডারেশনের সভাপতি দীপক  দে জানালেন,   তাঁরা বিচারের জন্যে রাজ্যপাল এবং মুখ্যমন্ত্রীর কাছে যাবেন।

No comments

Powered by Blogger.