Header Ads

ভূমি সংরক্ষণ বিভাগের ৭ জন মাষ্টাররুল কর্মী ২৩ মাস থেকে বেতনহীন

বিপ্লব দেব, হাফলংঃ ডিমা হাসাও জেলার ভূমি সংরক্ষণ বিভাগের মাষ্টাররুল কর্মীরা গত ২৩ মাস ধরে বেতন না পেয়ে ব্যাপক আর্থিক সংঙ্কটে পড়েছেন। মাষ্টাররুল কর্মী সুবল নায়েক বলেন- ২০১৭ সালের মার্চে শেষবার তাঁরা বেতন পেয়েছিলেন। তারপর থেকে আর বেতনের মুখ দেখে নি। এই অবস্থায় পরিবার প্রতিপালন করতে এমনকি ছেলে মেয়েদের পড়াশুনার খরচ চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। আরেক মাষ্টাররুল কর্মী রাধেশ্যাম ভর জানান তাঁদের মাসিক বেতন মাত্র ৬ হাজার ৮২৫ টাকা। এই কম বেতন পেয়েই পরিবার চালাতে হচ্ছিল। এবার বেতন বন্ধ হয়ে পড়ায় তাঁদের অবস্থা শোচনীয় হয়ে পড়েছে। এমনকি তাঁদের চাকরীও আজ পর্যন্ত নিয়মিত হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে এই ৭ জন মাষ্টাররুল কর্মী গৌহাটি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে। গৌহাটি হাইকোর্ট ২০১৮ সালের অক্টোবরে এই মাষ্টাররুল কর্মীদের পক্ষে রায়দান করে ডিমা হাসাও জেলার ভূমি সংরক্ষণ বিভাগের অতিরিক্ত সঞ্চালককে দু’মাসের অর্থাৎ ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের বিরুদ্ধে ভূমি সংরক্ষণ বিভাগের ৭ জন মাষ্টাররুল কর্মীদের বকেয়া বেতন মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিলেও এখনও পর্যন্ত ভূমি সংরক্ষণ বিভাগের মাষ্টাররুল কর্মীদের বেতন মিটিয়ে দেওয়া হয়নি। আদলাতের নিৰ্দেশের  অবমাননা করার অভিযোগ উঠেছে  বিভাগটির অতিরিক্ত সঞ্চালক অনুপ ব্রহ্মের ওপর। ভূমি সংরক্ষণ বিভাগের গুঞ্জুং রেঞ্জের মাষ্টাররুল কর্মী সুবল নায়েক জানান বিনা বেতনেই তাঁদের বিভাগীয় কাজকৰ্ম চালিয়ে যেতে হচ্ছে।

No comments

Powered by Blogger.