Header Ads

রাফেল চুক্তির সঙ্গে জড়িত গোপন নথিপত্ৰ চুরি হয়েছে, সুপ্ৰিম কোৰ্টকে জানাল কেন্দ্র

নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, নয়াদিল্লিঃ পাকিস্তানের এফ১৬ যুদ্ধবিমানের সঙ্গে টক্কর দিতে ভারতের চাই রাফেল যদ্ধবিমান। বুধবার সুপ্ৰিম কোৰ্টে রাফেল মামলা নিয়ে শুনানিতে আদালতকে একথা বলেন সরকারী আইনজীবী অ্যাটৰ্নি জেনারেল কে কে বেনুগোপাল। তিনি আরও বলেন- পাকিস্তানের যুদ্ধবিমান এলওসি ক্ৰস করে দেশের আকাশে ঢুকে পরলে তাদের রুখতে ভারতীয় সেনারা ১৯৬০ সালের মিগ ২১ দিয়ে পাকিস্তানের এফ১৬ এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে লড়াই করলেও দেশের সুরক্ষাৰ্থে রাফেল যুদ্ধবিমান প্ৰয়োজন। রাফেল চুক্তির সঙ্গে জড়িত গোপন নথিপত্ৰ চুরি হয়েছে। এদিন শুনানি চলাকালীন দেশের সৰ্বোচ্চ আদালতকে একথা সাফ জানিয়েছে কেন্দ্ৰীয় সরকার। কেন্দ্ৰীয় সরকারের কৌঁসুলি এদিন আদালতকে স্পষ্টভাবে জানান, ‘প্ৰতিরক্ষা মন্ত্ৰক থেকে রাফাল চুক্তির সঙ্গে জড়িত নথিপত্ৰগুলি চুরি করা হয়েছে। এতে সাহায্য করেছে ওই মন্ত্ৰকের প্ৰাক্তন অথবা বৰ্তমান কৰ্মচারীরা। এগুলো অত্যন্ত গোপন নথি এবং কোনওভাবেই প্ৰকাশ্যে আনা যেতে পারে না সেগুলিকে।’ সুপ্ৰিম কোৰ্টের মুখ্য বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানিয়েছেন, সরকার এর বিরুদ্ধে কী কী ব্যবস্থা গ্ৰহণ করেছে তা জানাক। তবে কি করে রাফালের নথিপত্ৰগুলি চুরি গেল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে কেন্দ্ৰ জানিয়েছে। এ সম্পৰ্কে অ্যাটৰ্নি জেনারেল বলেছেন- ‘এটি একটি গৰ্হিত অপরাধ। আমরা প্ৰাথমিকভাবেই এর বিরোধীতা করছি তার কারণ গোপন নথিপত্ৰ পিটিশনের সঙ্গে কখনই জুড়ে দেওয়া যায় না। তাই রিভিউ এবং জুরিদের কাছে পেশ করা পিটিশনটিও বাতিল করা উচিত।’ রাফেল মামলার পরবৰ্তী শুনানী আগামী ১৪ মাৰ্চ। 

No comments

Powered by Blogger.