Header Ads

চেন্নাইয়ের অসম ভবন শুধু সাধারণ ভবন নয় অসম তামিলনাডুর মাঝে এক সেতু বন্ধনঃ সৰ্বানন্দ সনোয়াল

অমল গুপ্ত
গুয়াহাটিঃ দক্ষিণ ভারতের অন্যতম এক বৃহৎ রাজ্য তামিলনাডু। অসমের বহু মানুষ সেই রাজ্যে চিকিৎসাসেবা, পড়াশুনা এবং ভ্ৰমণের জন্য যায়। কিন্তু অসমের মানুষের সেই রাজ্যে সরকারীভাবে কোনও বাসস্থান ছিল না। সেই শূণ্য পূরণ হল। মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সনোয়াল আজ আনুষ্ঠানিকভাবে চেন্নাইয়ের অসম ভবনের দ্বারোদঘাটন করেন। ১২ কোটি ৯৩ লক্ষ টাকার ব্যয়ে পাঁচতলা বিশিষ্ট এই ভবনে ৩২ টি ঘর আছে। মুখ্যমন্ত্ৰী চেন্নাইয়ের অসম ভবনকে শুধু সাধারণ ভবন না বলে অসম এবং তামিলনাডুর মাঝে এক সেতু বন্ধন বলে মন্তব্য করেন। অসমের বহু ছাত্ৰ-ছাত্ৰী, রোগী এবং অন্যান্য ভ্ৰমণকারীদের সহায়ক হবে এই ভবন। এর পর ভেলোর, বাঙ্গালুরু, হাইদরাবাদ, কোচি, থিরুঅনন্তপুরম, চণ্ডিগড়, জয়পুর, পুনে ইত্যাদি জায়গায় অসম ভবন নিৰ্মাণ করা হবে বলে মুখ্যমন্ত্ৰী জানান। তিনি বলেন, কলকাতায় নব নিৰ্মিত দ্বিতীয় অসম ভবন শীৰ্ঘ্ৰই চালু করা হবে। দিল্লীতে তৃতীয় অসম ভবন নিৰ্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। তামিলনাডু সরকারের প্ৰতি কৃতজ্ঞতা প্ৰকাশ করে মুখ্যমন্ত্ৰী বলেন, ‘এক ভারত শ্ৰেষ্ঠ ভারত'-এর মহান আদৰ্শকে বাস্তবায়িত করার লক্ষ্য নিয়ে তামিলনাডু সরকার অসম সরকারকে ভূমি প্ৰদান সহ যাবতীয় সাহায্য দিয়েছে। মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সনোয়াল তামিলনাডুর শিল্পপতিদের অসমে বিনিয়োগের আহবান জানিয়ে বলেন, ‘এ্যাডভােণ্টেজ আসাম' শীৰ্ষক বিশ্ব বিনিয়োগ সন্মেলনে ৭৯০০০ কোটি টাকার বিনিয়োগের প্ৰস্তাব পেয়েছে। গত ৫ মাসে ৮ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ সম্ভব হয়েছে। রাজ্যে শিল্প বিনিয়োগের অনুকুল পরিবেশ আছে। তামিলনাডুর ব্যবসায়ীদের সৰ্ব বিধ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবে অসম সরকার। এই অনুষ্ঠানে পৰ্যটন বিভাগের মন্ত্ৰী চন্দ্ৰন ব্ৰহ্ম অসমের সাৰ্বিক উন্নয়নের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। কৃষিমন্ত্ৰী অতুল বরা, অসম পৰ্যটন উন্নয়ন নিগমের অধ্যক্ষ জয়ন্ত মল্ল বরুয়া, উপাধ্যক্ষ নবজিৎ কলিতা তামিলনাডু সরকারের মৎস্য মন্ত্ৰী জয়কুমার, সাধারণ প্ৰশাসন বিভাগের কমিশনার সচিব এম অংগমুথু, পৰ্যটন বিভাগের সচিব রাজেশ প্ৰসাদ প্ৰমুখ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

No comments

Powered by Blogger.