Header Ads

বাংলা গান গাওয়ার অপরাধে সংগীত শিল্পী শানকে লক্ষ্য করে কাগজের বল ছুড়ে মারলেন দৰ্শক

 
নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, গুয়াহাটিঃ মহানগরের বুকে দাঁড়িয়ে বাংলা গান গাওয়ার অপরাধে সংগীত শিল্পী শান্তনু মুখাৰ্জি ওরফে শানকে লক্ষ্য করে একাংশ দৰ্শকের কাছ থেকে মঞ্চে কাগজের বল ছুড়ে মারার ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই লজ্জানত করেছে গোটা রাজ্যের শিল্পী সমাজকে। তবে এই ঘটনায় চুপ থাকেন নি অপমানিত শিল্পীও। মাইক হাতে তিনি বলেন,‘আঞ্চলিকতাবাদের বেড়াজাল থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। অসম এই দেশেরই অঙ্গ। আলাদা নয়।’ রবিবার রাতে গুয়াহাটির সরুসজাইয়ের ভিড়ে ঠাসা মাঠে শানের অনুষ্ঠান ছিল। অনুষ্ঠানে ‘জয় আই অসম’ বলে অসমিয়া গান দিয়েই অনুষ্ঠান শুরু করেন তিনি। একের পর এক হিন্দি এবং মাঝে মাঝে অসমিয়া গানও করেন তিনি। একটা সময় মঞ্চে বাংলা গান করেন বাঙালি এই শিল্পী। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে লক্ষ্য করে কাগজের বল ছুড়ে মারা হয়। তবে তা শানের গায়ে লাগেনি। সঙ্গে সঙ্গে মেজাজ হারান তিনি। মাঝপথেই বন্ধ হয় গান। তবে রবিবার রাতের ওই ঘটনাকে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে পুলিশ প্ৰশাসন। তাদের মতে, কাগজের বলে শানকে অসমিয়া গান করার অনুরোধ জানানো হয়েছিল। পুলিশের এই ভাষ্যকে সত্যি ধরে নিলেও এটাই কি একজন শিল্পীকে গানের অনুরোধ করার ধরন! প্ৰশ্ন উঠেছে সচেতন মহলে। তবে রাতের মধ্যেই শানকে বল ছুড়ে মারা এবং শানের গোটা মন্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়ে। গোটা ঘটনায় জাতীয় নাগরিকপঞ্জি, নাগরিকত্ব আইন সংশোধনী বিলের প্ৰভাব যে সংস্কৃতির জগতেও নেতিবাচক প্ৰভাব ফেলেছে সেকথা কিন্তু অস্বীকার করা যাচ্ছে না। 

No comments

Powered by Blogger.