Header Ads

বিদেশে আটক ১০ লাখ ভারতীয়কে ফেরানোর উদ্যোগ !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়
বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়দের বুধবার থেকে দেশে ফেরাবে সরকার। প্রচুর ভারতীয়, বিশেষ করে অন্য দেশে আটকে থাকা শ্রমিকরা বারবার করে দেশে ফেরানোর আবেদন জানাচ্ছিলেন।
বর্তমানে এক কোটি ৭০ লাখেরও বেশি ভারতীয় বিদেশে আছেন। তার মধ্যে প্রায় লাখ দশেক লোককে দেশে ফেরাতে হবে। সেই কাজটাই বিদেশ মন্ত্রক শুরু করছে বুধবার থেকে।  এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ বিমান ও জাহাজে করে করোনার কারণে আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরানো হবে বলে বিদেশ মন্ত্রক একটি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে।

বাংলাদেশে আটকে পড়া ভারতীয়দেরও ফেরানো হবে। ইতিমধ্যে ঢাকায় ভারতীয় দূতাবাসের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, বাংলাদেশে আটকে পড়া ভারতীয়রা যেন দেশে ফেরার জন্য নাম নথিভুক্ত করেন।
গত মার্চে করোনার প্রকোপ যখন বাড়ছিল, তখনই বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর জানিয়ে দেন, বিদেশে থাকা ভারতীয়রা যেন তড়িঘড়ি দেশে ফেরার চেষ্টা না করেন। লকডাউন জারির পর বিমান চলাচলও বন্ধ করে দেওয়া হয়। ফলে তাঁদের ফেরার সুযোগও ছিল না। ভারতে এখন লকডাউন সত্ত্বেও কড়াকড়ি শিথিল করা হয়েছে। বিশেষ করে, 'সবুজ' ও 'কমলা' এলাকাগুলিতে কড়াকড়ি অনেকটাই কম। 'সবুজ' এলাকা মানে যে সব জেলায় গত ২১ দিনে করোনায় কেউ আক্রান্ত হননি। 'লাল' এলাকা মানে যেখানে এখনও প্রচুর লোক করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। এর বাইরে থাকা এলাকাগুলিকে 'কমলা' বলা হচ্ছে। দেশের মধ্যে বিভিন্ন রাজ্যে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদেরওট্রেনে করে নিজের রাজ্যে ফেরানোর কাজ চলছে। এ বার দেশের বাইরের শ্রমিক ও আটকে পড়া পর্যটক, ছাত্র ও অন্য ভারতীয়দের ফেরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 
সংখ্যার দিকে তাকালেই বোঝা যাবে, কাজটা সহজ নয়। লাখ দশেক ভারতীয়কে দেশে ফেরানো সময়সাপেক্ষ কাজ। তাই কয়েকটি পর্বে ভাগ করে তাঁদের ফেরানো হবে। প্রথম পর্ব ৭ থেকে ১৪ মে পর্যন্ত। এই সময়ে ১২টি দেশ থেকে ৬০টি বাণিজ্যিক ফ্লাইট চালিয়ে ১৫ হাজারের মতো লোককে দেশে ফেরানো হবে। তার মধ্যে অর্ধেক বিমান যাবে সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, কাতার, সৌদি আরব ও বাহরিনে। এ ছাড়া বাংলাদেশ, অ্যামেরিকা, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন্সেও বিমান যাবে।
বিদেশ থেকে যাঁদের দেশে ফেরানো হচ্ছে, তাঁদের বিমানের টিকিট বা জাহাজে ফেরার ভাড়া দিতে হবে। তবে সেই টিকিটের দাম কত হবে তা এখনও জানা যায়নি। বিমানগুলি দিল্লি, তামিলনাড়ু ও কেরলেই বেশি নামবে। কেরল থেকে মধ্য প্রাচ্যে সব চেয়ে বেশি লোক যান। কেরলের অর্থমন্ত্রীর হিসাব হলো, পাঁচ লাখ লোক বিদেশ থেকে রাজ্যে ফিরবেন। আবু ধাবি, দুবাই, রিয়াধ এবং দোহায় প্রথমে বিমান পাঠানো হবে।
মধ্য প্রাচ্যের দেশগুলিতেই প্রায় সাড়ে আট লাখ ভারতীয় কাজ করেন। ভারতীয় দূতাবাস ও হাই কমিশন এখন দেশে ফিরতে চাওয়া ভারতীয়দের তালিকা তৈরি করছে। শুধু আমিরাত থেকেই দুই লাখের বেশি লোক তাতে নাম লিখিয়েছেন। করোনার ফলে লকডাউন ঘোষিত হওয়ায় অনেক পরিযায়ী কর্মী কাজ হারিয়েছেন। তবে মধ্য প্রাচ্যের দেশগুলি থেকে ভারতীয়রা অনেকেই জাহাজে করে ফিরবেন। মহিলা, বিশেষ করে গর্ভবতীদের বিমানে ফেরার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

No comments

Powered by Blogger.