Header Ads

23 জানুয়ারি নেতাজির জন্মদিনে এন ডি এফ বি-র আলোচনা বিরোধীদের সঙ্গে বাঙালিদের সশস্ত্র সংগঠন বাঙালি জন মুক্তি বাহিনী ও অস্ত্র ত্যাগ করে সমাজ জীবনে ফিরে আসবে



অমল গুপ্ত,  গুয়াহাটি :  ভয়ঙ্কর জঙ্গি সংগঠন ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট অফ বোড়োল্যান্ডে বা এন ডি  এফ বি-র সঙ্গে 10 বছরের বাঙালি জঙ্গি সংগঠন ন্যাশনাল লিবারেশন ফ্রন্ট বেঙ্গলি বা বাঙলি জন মুক্তি বাহিনী আগামী 23 জানুয়ারি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিনে গুয়াহাটিতে এক অনুষ্ঠানে আত্মসমর্পন করবে। আলফা-র কমান্ডার ইন চিফ পরেশ বরুয়া যাতে অস্ত্র পরিত্যাগ করে জঙ্গল ছেড়ে এসে   আত্মসমপর্ন করে তার জন্য বোড়োল্যান্ডের নেত্রী তথা সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী প্রমীলারানি ব্রহ্ম আজ আবেদন জানিয়েছেন তিনি এই আবেদনের কথা এই প্রতিবেদককে জানিয়ে বলেন,  অস্ত্র কোনো সমস্যার সমাধান করতে পারে না। একজন মা হিসাবে আমি পরেশ বরুয়ার কাছে আমার আবেদন, আপনার মায়ের তুল্য আমি আপনি অস্ত্র ত্যাগ করে অসমের সমাজ জীবনে ফিরে আসুন  এতদিন বাদে এন ডি এফ বি ও অস্ত্র পরিত্যাগ করে ফিরে আসছে। বাঙালি জনমুক্তি বাহিনীর চেয়ারম্যান অমর পাল জানান, তারা কা মানবে নাগরিকত্বের সব সুবিধা দিতে হবে ডি ভোটারের নামে হয়রানি বন্ধ করতে হবে ডিটেনশন ক্যাম্পের নামে বি টি সি এলাকার প্রায় 4-5 লক্ষ বাঙালিকে হেনস্থা করা হবে না। অস্ত্র পরিহার করার পর সরকারিভাবে পুনর্বাসনের ব্যাবস্থা করে দিতে হবে। এই সব দাবি সরকার মেনে নিয়েছে। তারা আই জি পি হিরেন নাথের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। তিনি জানান, আবসুর সভাপতি প্রমোদ বড়ো, এবং এন ডি এফ বি-র  আলোচনাপন্থী নেতা গোবিন্দ বাসুমতারিও কথা দিয়েছেন, আইন সভায় 40টি বদলে 60 হবে, 8টি আসন ওপেন থাকবে এবং 8টি আসন অবোড়ো জনগোষ্ঠীর জন্য সংরক্ষণ থাকবে। সেখানে বাঙালি প্রতিনিধিরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সুযোগ পাবে। চেয়ারম্যান আরও জানান, তারা বাঙালিদের জন্য স্যাটেলাইট কাউন্সিলের দাবিও জানিয়েছে। প্রজাতন্ত্র দিবসে সম্ভবত কেন্দ্রীয় সরকার বোড়োদের জন্যে ইউনিয়ন টেরিটোরি কাউন্সিল ঘোষণা করতে পারে।

No comments

Powered by Blogger.