Header Ads

কড়া পুলিশের পাহাড়ায় উন্নায়ের গ্ৰামে শেষকৃত্য সম্পন্ন হল উন্নাওয়ের নিৰ্যাতিতার

নয়া ঠাহর ওয়েব ডেস্কঃ কড়া পুলিশের পাহাড়ায় উন্নাওয়ের গ্ৰামে শেষকৃত্য সম্পন্ন হল নিৰ্যাতিতার। ৪০ ঘন্টা আগুনে পোড়ার যন্ত্ৰণা সহ্য করে তারপর জীবনের কাছে হার মানল তরুণী। শেষ কৃত্যের সময় গ্ৰামে উপস্থিত ছিলেন যোগী সরকারের বেশ কয়েকজন প্ৰভাবশালি মন্ত্ৰী। রবিবার সকালে নিৰ্যাতিতার বোন দাবী করেন উত্তরপ্ৰদেশের মুখ্যমন্ত্ৰী যোগী আদিত্যনাথকে গ্ৰামে আসতে হবে। নিৰ্যাতিতার পরিবারকে ২৫ লক্ষ টাকা আৰ্থিক সাহায্য এবং পাকা বাড়ি তৈরি করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিল যোগী সরকার। নিৰ্যাতিতার পরিবারকে পুলিশের নিরাপত্তা দেওয়ার কথাও জানিয়েছে ইউপি প্ৰশাসন। তরুণীর মৃত্যুতে ফুঁসছে গোটা দেশ। ফুঁসছে উন্নাওয়ের গোটা গ্ৰাম। এই পরইস্থিতিতে যোগী সরকারের সাহায্য ফিরিয়ে দেওয়ার কথা শুনিয়েছেন নিৰ্যাতিতার বাবা। তাঁর দাবী, ৭ দিনের মধ্যে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করুক যোগী সরকার। শনিবারই দিল্লির সফদরজঙ হাসপাতাল থেকে উন্নাওয়ের গ্ৰামের বাড়িতে নিয়ে আসা হয় নিৰ্যাতিতার দেহ। 

ছবি, সৌঃ আন্তৰ্জাল
প্ৰসঙ্গত, ২০১৮ সালে উন্নাওয়ের ২৩ বছরের তরুণীকে ধৰ্ষণের অভিযোগ ওঠে। চলতি বছরের মাৰ্চে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়। ন্যায় পাওয়ার আশায় আইন আদালতের চক্কর কাটতে থাকেন নিৰ্যাতিতা ও তাঁর পরিবারের লোকজন। ঘটনায় ৫ জন গ্ৰেফতারও হয়।  গত ২৫ নভেম্বর জামিন পান অন্যতম অভিযুক্ত শিবম ত্রিবেদী। জামিন পাওয়ার ১০ দিনের মধ্যে নির্যাতিতাকে পুড়িয়ে খুন করার মতো মারাত্মক অভিযোগ উঠেছে ধর্ষণে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে। এবার এই মামলার জল কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেটাই এখন দেখার।

No comments

Powered by Blogger.