Header Ads

তবু মাকে মনে পড়ে

জেল রোডের পুজা কান্দি
                                 
                                                          


অমল গুপ্ত  কান্দি জেল রোড, মুর্শিদাবাদ
সারা বছর দুর্গা মায়ের জন্যে  অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করি। রক্ত মাংসের মা দুর্গা কে কিন্তু  সারা বছর শুধুই অপমান করি। গর্ভধারিনি কে    রাস্তায় ফুটপাথে  ফেলে আসি।  ভূমিষ্ঠ শিশু কন্যাকে   ডাস্টবিন আবজর্না তে  রাতের অন্ধকারে ছুড়ে ফেলি, একবার ভেবেও দেখি না ,কি পরিমান পাপ করছি।  রাজস্থান , হরিয়ানা তে  ভূমিষ্ট  শিশু কন্যাকে লবন  খাইয়ে , বা  কাপড় গুঁজে দিয়ে হত্যা করি। সেখানে  ও ধুমধাম  সহকারে দুর্গা  মায়ের আরাধনা হচ্ছে।  পরিবারের সম্মান    বজায়  রাখতে  রক্ত মাংসের মা  দুর্গাকে   হত্যা করি।  বিগত  বছরগুলোতে কত হাজার মা  দুর্গাকে হত্যা করলাম ,তার হিসাব কে রাখে ? শুধু উত্তর পূর্বাঞ্চল এবং  নেপাল  , বাংলাদেশ থেকে লাখ লাখ   শিশু কন্যা থেকে  যুবতী   আরবের   দেশ গুলো তে , কলকাতা ,মুম্বাই এর অন্ধকার জগতে পাচার হয়ে যারছে প্রতি দিন।   প্রতিদিন এই কল্যাণকামী   সরকারের  আমলে  হাজার হাজার  নারী ধর্ষিত  হচ্ছে,  দেশের  রাজধানী নগরী নয়া দিল্লি তেওঁ   মহিলাদের নিরাপত্তা নেই। উত্তরপ্রদেশের বিজেপি  সরকার যে ন্যাক্কারজনক নজির গড়ল  তার তুলনা মেলা ভার। যে  নেতা দিনের পর দিন  চাকরি দেওয়ার নামে  এক যুবতী কে বাড়িতে ডেকে এনে ধর্ষণ করলো সেই   যুবতীকে ই পুলিশ গ্রেফতার করলো,অবশ্য  সেই   নেতাকেও পুলিশ  ধরেছে।  এই উত্তর  প্রদেশে এই   ধর্ষণের শিকার এক   যুবতীকে গাড়ি চাপা  দিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয় , প্রমান লোপাটের জন্যে। সেই ধর্ষণে জড়িত ছিল এক  জন  প্রতিনিধি। বিহার , উত্তর প্রদেশ  এমন কি পশ্চিমবঙ্গেও   যুবতীদের    এসিড ছুড়ে  সুন্দর মুখ পুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে,  বাজারে এসিড বিক্রির ওপর    নিষেধাজ্ঞা জারির পরও  মা দুর্গার মুখ পোড়ানোর ঘটনা বেড়েই চলেছে। বর্তমান দেশে গরু কে  যে সম্মানটুকু দেওয়া হচ্ছে , তা   রক্ত মাংসের মা দুর্গাদের   দেওয়া হচ্ছে না, যা  বড় দুর্ভাগ্য।
সমাজের অর্ধাকাশ স্বরূপ  মহিলা দের কল্যানে সব সরকার বহু কোটি টাকা ব্যায় করে থাকে।   কিন্তু মহিলা   শিশুদের এত অবনতি হচ্ছে কেন?  কেন দেশের  প্রায় ৪০ ভাগ মহিলা  শিশু অপুষ্টিতে রক্তের অভাবে   কেন ভোগে?এই কি কল্যাণকামী দেশের লক্ষণ? চাঁদে পাড়ি জমানোর   চেষ্টা  চলেছে,  দেশ এগোচ্ছে,আর  দেশের    অর্ধেক মানুষ  নারী জাতি পেচচ্ছে।  আজ  নবমী মা দুর্গার শেষ আরাধনা, কাল মা নিজের নিজের দেশে ফিরে যাবেন, অসমে  রক্ত মাংসের মা দুর্গা রা ডিটেনশন ক্যাম্প জেল খাটছেন, তারা তো  মুক্ত আকাশের তলে গিয়ে দাঁড়াতেও পারবে না,ঘরে ফিরেও  যেতে পারবেন না। বিনা দোষে আজ ডিটেনশন ক্যাম্প অন্ধকার কুঠুরিতে কন্যা জায়া, জননিরা  চোখের জল ফেলছেন ,  প্রেম ভালোবাসা সৃষ্টির আনন্দ ঢাক কাসরের বাজানাই ঢাকা পড়ে গেছে।  মা দুর্গা কাল ফিরে যাবেন,আবার অধীর প্রতীক্ষা,  রক্ত মাংসের মা দুর্গারা   কিন্তু    লাঞ্ছিত হতেই থাকবে।দেশের মা ভালো নেই, আমরা কি ভালো থাকতে পারি?
সম্পাদক ,নয়া ঠাহর।

No comments

Powered by Blogger.