Header Ads

রাষ্ট্রপুঞ্জে আর্থিক মন্দার আঁচ, কর্মীদের বেতন দিতেই সমস্যা হতে পারে

ননী গোপাল ঘোষ : এবারে আর্থিক মন্দার আঁচ লাগল রাষ্ট্রপুঞ্জেও। বিদ্যুতের খরচ কমাতে রাষ্ট্রপুঞ্জে বন্ধ করা হবে এসকালেটর। কূটনৈতিকদের জন্য চালু পানশালা বন্ধ করা হবে বিকেল পাঁচটায়।
রাষ্ট্রপুঞ্জের ম্যানেজমেন্ট দফতরের মুখপাত্র ক্যাথরিন পোলার্ড জানিয়েছেন, ৩৭ হাজার কর্মীকে যাতে নিয়মিত বেতন দেওয়া যায় তার চেষ্টা চলছে। কাঁটছাট হতে চলেছে রাষ্ট্রপুঞ্জের কর্তাদের বিমান সফরে। অবস্থা এমন দাঁড়িয়েছে যে, বন্ধ করা হতে পারে এয়ারকুলারও।
রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুয়াত্রেস জানিয়েছেন, গত এক দশকে এমন আর্থিক সংকটের মুখ দেখেনি রাষ্ট্রপুঞ্জ । অর্থের ভাঁড়ারে টান পড়ছে। চলতি মাসে কর্মীদের বেতন দিতে সমস্যা হতে পারে। অপারেটিং বাজেটে ঘাটতি ১৪০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে।
অনেক দেশই পাওনা বকেয়া মিটিয়ে দেয়নি রাষ্ট্রপুঞ্জকে।ইজরায়েল, ভেনিজুয়েলা, ইরান, মেক্সিকো, আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল যদি রাষ্ট্রপুঞ্জকে বকেয়া পাওনা মিটিয়ে দেয় তবে আর্থিক ঘাটতির ৯০ শতাংশ কমে যাবে।
পরিস্থিতি এমন জায়গায় এসে দাঁড়িয়েছে যে বিভিন্ন দেশে শান্তি রক্ষী বাহিনী পাঠাতে সমস্যা হতে পারে। শান্তি রক্ষী বাহিনীর জন্য বিভিন্ন দেশ আলাদা করে অর্থ দেয় রাষ্ট্রপুঞ্জকে। অনেক দেশ সে অর্থ দেয়নি। আমেরিকার কাছে পাওনা ২৩০ কোটি ডলার। ফ্রান্স বাকি রেখেছে ১০ কোটি ৩০ লক্ষ ডলার। এর জের পড়ছে শান্তি রক্ষী বাহিনীর উপর। তাদের প্রাপ্য অর্থ দিতে অসুবিধা হচ্ছে।

No comments

Powered by Blogger.