Header Ads

গাছে বেঁধে মারা হল, তীব্র মানসিক যন্ত্রনায় নির্দোষ কিশোর ট্রেনে ঝাঁপ দিল

নয়া ঠাহর প্রতিবেদন, গুয়াহাটিঃ

 মাত্র ১৬ বছরের দারিদ্র্যপীড়িত ছেলেটির কোনও দোষ ছিল না, প্রতিবেশি এক মেয়েকে অশ্লিল কথা বলেছে, এই অভিযোগে পাড়ার মস্তান গোছের মরাল পুলিশ বিচার সভা বসিয়ে ৪১  হাজার টাকা জরিমানা করে ছেলেটির, তার আগে ছেলেটিকে গাছের সঙ্গে বেঁধে অকথ্য অত্যাচার করে, দড়িতে বাঁধা ছেলেটিকে যন্ত্রনায় আর্তনাদ করতে দেখা যায় টিভির পর্দায়। নিরীহ  গরিব ছেলেটিকে বাঁচাতে কেউ এগিয়ে আসেনি।

অসমের বঙ্গাইগাঁও জেলার যোগিঘোপা গ্রামের ভরাল কুন্দির উদয় মালো নামের ছেলেটিকে মারতে মারতে প্রায় অজ্ঞান হয়ে পড়ে বলে গ্রাম বাসীরা অভিযোগ করেছে। পরে ছাড়া পেয়ে তীব্র মানসিক যন্ত্রনায় জর্জরিত হয়ে আর বাড়ি যায়নি, ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করে নিরোপরাধী ছেলেটি। এই রাজ্যে  দোষীদের সাজা হয় না। মরাল পুলিশ গিরি করা স্থানীয় মস্তানদের আজও গ্রেফতার করা হয়নি। পুলিশ গিয়েছিল তথাকথিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, এই পৰ্যন্ত, নিরীহ, নির্দোষ ছেলেটির বড় অপরাধ তারা বড় গরিব, পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল ৪১ হাজার তো দূরের কথা, তাদের ঘরে ১০ টাকাও নেই। তাদের অভুক্ত থাকতে হয়,  দুবেলা দুমুঠো খাবারই জোটে না। স্বাধীনতা দিবসের দিনের এই ঘটনা।

No comments

Powered by Blogger.