Header Ads

লোকসভায় সাধারণ বাজেট পেশ করছেন অৰ্থমন্ত্ৰী নিৰ্মলা সীতারমণ

নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, নয়াদিল্লিঃ শুক্ৰবার মোদি সরকারের দ্বিতীয় কাৰ্যকালের প্ৰথম পূৰ্ণাঙ্গ বাজেট দাখিল করা হচ্ছে। অৰ্থমন্ত্ৰী নিৰ্মলা সীতারমণ লোকসভায় সাধারণ বাজেট পেশ করছেন। 
ছবি, সৌঃ লোকসভা টিভি
প্ৰত্যেক বারের মত এবছরও এই বাজেট ঘিরে দেশবাসীর বহু প্ৰত্যাশা রয়েছে। এবারের বাজেটে কৰ্মসংস্থাপনের ওপর জোর দিয়েছেন অৰ্থমন্ত্ৰী নিৰ্মলা সীতারমণ। এক দেশ এক গ্ৰিড বিদ্যুৎ প্ৰকল্প চালু করা হবে। নতুন শিক্ষানীতির প্ৰণয়ণ। ভারতকে করা হবে উচ্চ শিক্ষার হাব। উচ্চ শিক্ষায় ৪০০ কোটি টাকা বরাদ্দের  ঘোষণা অৰ্থমন্ত্ৰীর। নারীর সৰ্বাঙ্গিন উন্নতিতে বিশেষ জোর। সেল্ফ হেল্প গ্ৰুপ গ্ৰামগুলিতে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। অৰ্থমন্ত্ৰী বলেন - ‘ আমাদের মন্ত্ৰ নারী থেকে নারায়ণী। স্বনিৰ্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের ১ লক্ষ টাকার ঋণ দেওয়া হবে।

ক্ষুদ্ৰ ব্যবসায়ীদের জন্য ক্ষুদ্ৰ প্ৰকল্প। বিমা ক্ষেত্ৰে ১০০ শতাংশ । সবার জন্য ঘর জল বিদ্যুৎ শৌচালয়। ২০২৪ এর মধ্যে প্ৰতি ঘরে পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হবে। ২৫৬ জেলায় জলশক্তি, দিনে ১৩০-১৩৫ সড়ক নিৰ্মাণ। দেশে নতুন শিক্ষা নীতির প্ৰণয়ণ করা হবে। বিদেশি ছাত্ৰদের আনতে নতুন শিক্ষা নীতি আনা হবে। প্ৰকল্পের নাম স্টাডি ইন ইন্ডিয়া। ক্ৰীড়াক্ষেত্ৰে উন্নয়নে নতুন বোৰ্ড। স্টাৰ্ট আপের জন্য নতুন টিভি চ্যানেল। ১ লক্ষ কোটি টাকার এমপিএ কম হয়ে গেছে। আইবিসির জন্য রেকৰ্ড পরিমাণ টাকা উদ্ধার করা গেছে। এবং দেশের ভেতরে ধারের পরিমাণ বেড়েছে। সরকার পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্কের সংখ্যাও কমিয়ে দিয়েছে। পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্ক গুলিকে ৭০ হাজার কোটি টাকার ক্যাপিটাল ৮ টি পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্কে দেওয়া হবে। এতে নতুন প্ৰযুক্তির মধ্যে দিয়ে ভোক্তাদের পরিষেবা দেবে। পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্কে সংস্কার আনা হবে।

আগামী ৫ বছরে ১০০ লক্ষ কোটি টাকা পরিকাঠামো উন্নতিতে খরচ করা হবে। দেশের রেলস্টেশনগুলিকে আধুনিকীকরণ করা হবে। রেলে ৫০ লক্ষ কোটি টাকা বিনিয়োগের লক্ষ্য। আফ্ৰিকার ৪ দশে গড়ে তোলা হবে ভারতীয় দূতাবাস। এয়ার ইন্ডিয়ার বেসরকারিকরণকে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। মানুষের ব্যবহারের জন্য আনা হচ্ছে নতুন মুদ্ৰা। দেশ বিদেশের পৰ্যটকদের আকৰ্ষণ করতে নতুন উদ্যোগ নেওয়া হবে।

করদাতাদের জন্য সরকারী আয় বেড়েছে। সরকারী সংস্থায় বড় মাপের বিলগ্নিকরণ। আসছে ১, ২, ৫ এবং ১০ টাকার নতুন কয়েন। প্ৰত্যক্ষ করদাতার সংখ্যা বেড়েছে। ইলেক্ট্ৰিক ভেহিকেলের ওপর সুদের  ১২ শতাংশ কমবে। ইলেকট্ৰিক ভেহিকেল কিনলে দেড় লাখ টাকা ধারের ওপর ইনকাম ট্যাক্স ছাড় দেওয়া হবে। দেশের যুবক যুবতীদের জন্য স্টাৰ্ট আপ সুযোগ। স্টাৰ্ট আপের আয়কর রিটাৰ্নের স্কুটুনি হবে না, শুধুই ভেরিফিকেশন হবে।  বাড়ি কেনার জন্য ঋণের ওপর দেড় লক্ষ টাকা পৰ্যন্ত ছাড় দেওয়া হবে। সেটা চলবে ২০২০ পৰ্যন্ত। এর ফলে প্ৰায় সাড়ে ৭ লক্ষ টাকা একজন ক্ৰেতার লাভ হবে। আধার নম্বর দিয়েই করা যাবে আয়কর রিটাৰ্ন।  ব্যাংক থেকে ১ কোটির বেশি টাকা তোলা হলে তার ওপর ২ শতাংশ হারে টিডিএস বসবে।
পেট্ৰোল ডিজেলের ওপর ১ টাকা সেস বাড়ানো হল। সোনা এবং অন্যান্য মূল্যবান ধাতুর ওপর কাস্টমস ডিউটি ১২ শতাংশ করা হল।



No comments

Powered by Blogger.