Header Ads

এনআরসিতে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বিরোধী দল পতি

নয়া ঠাহর প্রতিবেদন, গুয়াহাটিঃ অসমে এনআরসি রূপায়ণের কাজ দ্রুতগতিতে চলছে,সেই সঙ্গে হিন্দু , মুসলিম  সংখ্যালঘু বাঙালিদের  চরম হেনস্থার মুখে পড়তে হচ্ছে।  সরকার মুক, নীরব। মঙ্গলবার  বিরোধী দলপতি দেবব্রত শইকিয়া অভিযোগ করেন হেনস্থার  সীমা  ছাড়িয়ে গেছে। তিনি বিচারবিভাগীয় তদন্তের দাবি  জানান। এদিন বিধানসভায়  কংগ্রেস চেম্বারে সাংবাদিকদের বলেন, এনআরসি নিয়ে সুপ্রিম  কোর্ট তত্বাবধান করছে, তার পাশাপাশি এক তদন্ত কমিটি গড়ে   হেনস্থার অভিযোগগুলো খতিয়ে  দেখতে পারে। বিরোধী দলপতি বলেন ১০০ ভাগ ক্ষেত্রে হয়রানি হচ্ছে। সুপ্রিম কোর্ট ১০শতাংশ হারে পর্যালোচনা করার নির্দেশ  দিয়েছেন। কিন্তু  তা করা হয় নি। কংগ্রেস বিধানসভার পরিসদ দলের নেতা দেবব্রত বলেন, শুধু ভাষিক ও  ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায় নয়, অন্য জনগোষ্ঠীর মানুষ ও হেনস্থার   মধ্যে পড়েছে। শুনানিতে গরিব  মানুষগুলো বিভিন্ন জেলায় তলব করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গরীব  মানুষগুলোকে টি এ ডি এ দেওয়া উচিত। বিরোধী দলপতি বলেন, কংগ্রেস রাষ্ট্রপতি, গভর্নর, আর  জি আই কে মেমোরেন্ডম দিয়েছে। কিন্তু তারপরও এন আর সি নিয়ে অরাজকতা চলছে। ভারতীয় নাগরিকদের নানাভাবে হয়রান করা হচ্ছে।  বানান ভুল করে বহু মানুষকে  এন আর সি কর্তৃপক্ষ ডিটেনশন ক্যাম্পে পাঠিয়েছে। এদিন বরপেটার   সাংসদ আব্দুল খালেক বিধায়ক  পদ থেকে পদত্যাগ করেন।তিনি তা‍ঁর মাকে বিদেশি বানানোর চক্রান্তের  অভিযোগ করেন।


No comments

Powered by Blogger.