Header Ads

পাহাড় লাইনে অনিৰ্দিষ্টকালের রেল অবরোধে যাত্রী দুর্ভোগ চরমে


 বিপ্লব দেব, হাফলংঃ ১৪৪ ধারা অমান্য করে নিউহারাঙ্গাজাও স্টেশনে রেল অবরোধ গড়ে তুলল এন সি হিলস ইন্ডিজেনাস স্টুডেন্টস ফোরাম। বৃহস্পতিবার এক সরকারী নির্দেশে ডিমা হাসাও জেলার জেলাশাসক তথা জেলা মেজিস্ট্ৰেট অমিতাভ রাজখোয়া ডিমা হাসাও জেলার বিভিন্ন রেল স্টেশন চত্বর ও রেল ট্র্যাকের আশেপাশের এলাকায় ভরতীয় দন্ডবিধির উপর ১৪৪ ধারা জারি করলেও কার্যত কোনও কিছুই কাজে আসেনি। সব কিছু অমান্য করে এদিন বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তিন চারশো প্রতিবাদকারী নিউহারাঙ্গাজাও স্টেশনে রেল অবরোধ গড়ে তুলে তবে তার আগে গুয়াহাটি-শিলচর ফাস্ট প্যাসেঞ্জার ট্রেনটি নিউহারাঙ্গাজাও স্টেশন পার হয়ে গেলেও আর কোনও ট্রেন চলাচল করতে পারে নি। ১৪৪ ধারা জারি থাকার পরও জেলাপ্রশাসন রেল অবরোধকারীদের সড়িয়ে দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। এদিকে রেল অবরোধের ফলে শিয়ালদাহ-শিলচর কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেন নিউহাফলং স্টেশনে আটকা পড়ে অন্যদিকে শিলচর-গুয়াহাটি ফাস্ট প্যাসেঞ্জার ট্রেন ও আগরতলা-শিলচর কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনটিকে যথাক্রমে ডিটেকছড়া ও চন্দ্রনাথপুর স্টেশন থেকে ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত হারাঙ্গাজাও স্টেশনে রেল অবরোধ অব্যাহত রয়েছে। এদিকে আজ সকাল থেকেই জেলাপ্রশাসনের পক্ষ থেকে মেজিস্ট্ৰেট হেমাঙ্গ নবিস অতিরিক্ত পুলিশসুপার প্রশান্ত দত্ত ও দক্ষিণ আসাম রেঞ্জের ডিআইজি প্রশান্ত কুমার দত্ত নিউহারাঙ্গাজাও স্টেশনে উপস্থিত হয়ে রেল অবরোধকারীদের অবরোধ প্রত্যাহার করে নেওয়ার আহ্বান জানালে এতে কাজের কাজ কিছুই হয়নি। অবরোধকারীরা তাদের সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন। তাদের দাবি উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল যত সময় পর্যন্ত তাদের ক্ষতিপূরণের টাকা মিটিয়ে দেবেনা তত সময় পর্যন্ত তাদের ক্ষতিপূরণের টাকা মিটিয়ে দেবেনা তত সময় পর্যন্ত তারা তাদের রেল অবরোধ কর্মসূচি চালিয়ে যাবে। ইন্ডিজেনাস স্টুডেন্টস ফোরামের সভাপতি ডেভিড কেভম বলেন রেল কর্তৃপক্ষ অনেকবার ক্ষতিগ্রস্থ গ্রামবাসীদের ক্ষতিপূরণ মিটিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েও ক্ষতিপূরণ মিটিয়ে দেয়নি প্রতিবারই রেল কর্তৃপক্ষ তাদের ঠকিয়েছে তাই এবার ক্ষতিপূরণ মিটিয়ে দেওয়ার বিষয়ে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের জেনারেল ম্যানেজারের কাছ থেকে লিখিত কোনও প্রতিশ্রুতি না পাওয়া পর্যন্ত তারা তাদের রেল অবরোধ প্রত্যাহার করবেনা। অন্যদিকে ডিমা হাসাও জেলায় ইন্ডিজেনাস স্টুডেন্টস ফোরামের ডাকা অনিৰ্দিষ্টকালের রেল অবরোধের ফলে বৃহস্পতিবার পাহাড় লাইনে রেলযাত্রীরা চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়েন। নিউহাফলং স্টেশনে আটকে পরা কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রীদের অবস্থা শোচনীয় হয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার থেকে পাহাড় লাইনে ইন্ডিজেনাস স্টুডেন্টস ফোরাম অনিদৃষ্টকালের জন্য রেল অবোরধ গড়ে তুলবে বলে আগে থেকে জানিয়ে দেওয়ার পর ও উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে কয়েক হাজার রেলযাত্রীকে সমস্যার মুখে ঠেলে দেয়। উল্লেখ্য লামডিং-শিলচর ব্রডগেজ প্রকল্পের কাজ করতে গিয়ে নিউহাফলং থেকে নিউহারাঙ্গাজাও পর্যন্ত ৫০ টি পরিবারের ৫০০ টি পরিবারের কৃষি জমি ও বসতবাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয় এবং দীর্ঘদিন থেকে এসব ক্ষতিগ্রস্থ গ্রামবাসীদের ক্ষতিপূরণ মিটিয়ে দেওয়ার দাবিতে ইন্ডিজেনাস স্টুডেন্টস ফোরাম দাবি জানিয়ে আসছে কিন্তু রেল কর্তৃপক্ষ তাদের এই দাবি নিয়ে তেমন গুরুত্ব দিচ্ছে না বলে অভিযোগ। তাই বাধ্য হয়ে ছাত্র সংগঠনটি শুক্রবার সকাল ৫ টা থেকে পাহাড় লাইনে অনিৰ্দিষ্টকালের জন্য রেল অবরোধের ডাক দেয়। এই প্রতিবেদন পাঠানো পর্যন্ত রেল অবরোধকারীদের সঙ্গে জেলাপ্রশাসনের আলোচনা চলছে অবরোধ প্রত্যাহার করে নেওয়ার জন্য বলে জানা গিয়েছে। শেষ খবরে জানা গিয়েছে শিয়ালদাহ-শিলচর কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনটিকে নিউহাফলং থেকে শিয়ালদাহ পর্যন্ত ফেরত পাঠানো হয়েছে।

No comments

Powered by Blogger.