Header Ads

করিমগঞ্জে আজই ব্যালট পেপার ছাপিয়ে সকাল ৭ টার বদলে ১০ টা থেকে ভোট হল, নিৰ্বাচন কমিশনারের হস্তক্ষেপ দাবি প্ৰদেশ কংগ্ৰেসের

গুয়াহাটিঃ বরাক উপত্যকার করিমগঞ্জ জেলায় জেলার রিটানিং অফিসার বিনা  ব্যালট পেপারে ৩৯ টি কেন্দ্ৰে নিৰ্বাচন পরিচালনা করছেন বলে গুরুতর অভিযোগ করেছেন অসম প্ৰদেশ কংগ্ৰেস কমিটি। বিরোধী দলপতি দেবব্ৰত শইকিয়ার নেতৃত্বে এক প্ৰতিনিধি দল রাজ্য নিৰ্বাচন কমিশনারের কাছে এক স্মারক পত্ৰ পাঠিয়ে গুরুতর এই অভিযোগ সম্পৰ্কে অবিলম্বে কমিশনারের হস্তক্ষেপ করার দাবি করেছে। করিমগঞ্জ জেলা রিটাৰ্নিং অফিসার সব নিয়ম-নীতিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে গণতন্ত্ৰকে হত্যা করেছে। বিধায়ক কমলাক্ষ দে পুরকায়স্থ মঙ্গলবার গুরুতর অভিযোগ করে বলেন, ‘পঞ্চায়েত নিৰ্বাচন সুষ্ঠভাবে হওয়ার পরেও আজ পুনরায় ২৬টি কেন্দ্ৰে পঞ্চায়েত নিৰ্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৭ টার বদলে ১০টা থেকে শুরু হয় ভোট। আজই ২৪টি ব্যালট পেপার ছাপিয়ে এনে ভোট হয়। আগামী কালও আবার ১৫টি কেন্দ্ৰে নিৰ্বাচন হবে এখনও ব্যালট পেপার ছাপা হয় নি। আগামি কাল হবে।' প্ৰদেশ কংগ্ৰেস স্মারক পত্ৰে অভিযোগ করেছে নিৰ্বাচনের নামে চরম প্ৰহসন চলছে। করিমগঞ্জ জেলা প্ৰশাসন শাসক দলের পক্ষে ফলাফল দেখানোর জন্য সব ধরণের অনৈতিক, অবৈধ ব্যবস্থা গ্ৰহণ করেছে। কাছাড় জেলার ৩৬/৬১০ এবং ২৮ কান্নিঘাট জি পি (ধলায় থানা)র অন্তৰ্গত কংগ্ৰেস প্ৰাৰ্থী সঙ্গীতা মালাকার, উষা মালাকার, ফুলন্তি দাস এবং জয়ন্ত মালাকারকে গ্ৰেফতার করা হয়েছে। মন্ত্ৰী পরিমল শুক্ল্যবৈদ্যের নিৰ্দেশে তাদেরকে গ্ৰেফতার করা হয়েছে বলে স্মারক পত্ৰে অভিযোগ করা হয়েছে।

No comments

Powered by Blogger.