Header Ads

তিনসুকিয়া গণহত্যা কাণ্ডে রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ হতে চলেছে তৃণমূল

 ছবি, সৌঃ এনডিটিভি
নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, গুয়াহাটিঃ  তিনসুকিয়া গণহত্যা কাণ্ডে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সনোয়াল ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতদের পরিবারের খোঁজখবর নেওয়ার আগেই তৃণমূলের একটি প্ৰতিনিধি দল সেখানে গিয়ে নিহতদের পরিবারের খোঁজখবর নিলেন। রবিবার সকালেই পশ্চিমবঙ্গ থেকে অসমে আসে তৃণমূলের একটি প্ৰতিনিধি দল। তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েনের নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধি দলে ছিলেন সাংসদ নাদিমুল হক, বিধায়ক মহুয়া মৈত্ৰ এবং সাংসদ মমতা বালা ঠাকুর। নিহতদের পরিবারের লোকজনের সঙ্গে দেখা করে স্বজনহারাদের চোখের জল মুছিয়ে এদিন তৃণমূলের  বিধায়ক মহুয়া মৈত্র বলেন, “মমতা দিদি আমাদের পাঠিয়েছেন। দিদি বলেছেন, গোটা বাংলা আপনাদের সঙ্গে আছে।” পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী নিহতদের পরিবারদের ১ লক্ষ টাকা দেওয়ার ঘোষণা করেছেন বলে এ দিন জানায় তৃণমূলের প্রতিনিধি দল। নিহতদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলার পর এই ঘটনায় রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ দাবি করেন প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। তৃণমূল ইতিমধ্যেই রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করার জন্য সময় চেয়ে চিঠি করেছে বলে খবর। তিনসুকিয়ায় ঘটনাস্থলে চারদিকে পরিবেশ এবং পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখে ডেরেক ও’ব্ৰায়েন বলেন- ‘এ রাজ্যে বাঙালিদের অবস্থা দেখে দুঃখ প্ৰকাশ করার আর ভাষা নেই। যা শুনেছি, পরিস্থিতি তার চেয়েও খারাপ।’ বিধায়ক মহুয়া মৈত্ৰ বলেন-এ রাজ্যে এনআরসি উদ্ভুত যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে তাতে কোনও সভ্য সমাজ এখানে থাকতে পারবে না।’ উল্লেখ্য, এদিন অসমে গিয়ে কোনও শিলচর-অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে হয়নি। অসম সরকার আগেই বলে দিয়েছিল, কোনও বাধারই সম্মুখীন হতে হবে না তৃণমূলের প্রতিনিধি দলের সদস্যদের। পুলিসি নিরাপত্তাতেই এদিন নিহতদের গ্রামে পৌঁছন তাঁরা। এদিনই তিনসুকিয়া কাণ্ডের প্ৰেক্ষিতে পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ায় তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে একটি প্ৰতিবাদ মিছিল বের হয়।

No comments

Powered by Blogger.