Header Ads

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের জোড়াল সওয়াল অমিত শাহের

নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, মালদহঃ পশ্চমিবঙ্গের মুখমন্ত্ৰী দেশের ২০ টি দলের নেতাদের নিয়ে এসে ব্ৰিগেডে জোড়দার মহাসভা করে বিজেপিকে পরাভূত করে দিল্লি দখলের ডাক দিয়েছেন। অসুস্থ ছিলেন বিজেপি সৰ্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। তিনি সুস্থ হয়ে মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গের মালদহ জেলায় একক বিরাট জনসভায় মমতাকে এক হাত নিয়ে বলেন- ‘আপনারা যতই রাজনীতি দলগুলোকে পাশে আনুন কিন্তু আপনারা পরিবৰ্তী লোকসভা নিৰ্বাচনে কিছুই করতে পারবেন না। মোদী আবার দেশকে মজবুত সরকার উপহার দেবেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘অ্যাতোদিন দেশকে লুটেছে কংগ্ৰেস। পশ্চিমবঙ্গের লোকসভা নিৰ্বাচন কেন্দ্ৰীয় বাহিনীকে দিয়ে করাবো।’ তিনি অসমের প্ৰসঙ্গ টেনে বলেন, ‘আমরা অনুপ্ৰবেশকারীকে সহ্য করবো না। হিন্দু, খ্ৰিস্টান, পাৰ্সি প্ৰভৃতি জনগোষ্ঠীর সংখ্যালঘু মানুষ যারা বিভিন্ন দেশ থেকে ভারতে এসেছে তাদের জন্য নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। সংসদে পেশ করা হয়েছে। আমরা যেকোনওভাবেই হিন্দুদের স্বাৰ্থ রক্ষা করবই। এদিকে প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদি এদিন প্ৰবাসী ভারতীয়দের সম্মেলনে বিগত কংগ্ৰেস সরকারের দুৰ্নীতি প্ৰসঙ্গে বলেন- প্ৰয়াত প্ৰাক্তন প্ৰধানমন্ত্ৰী রাজীব গান্ধী বলেছিলেন উন্নয়নের ক্ষেত্ৰে বরাদ্দ কৃত প্ৰতি এক টাকার বিপরীতে ৮৫ পয়সাই আত্মসাৎ হয়। মাত্ৰ ১৫ পয়সা উন্নয়নের কাজে লাগানো হয়। সেই প্ৰসঙ্গ টেনে মোদী বলেন- আমরা ছু মন্তর করে পুরো টাকাটাই উন্নয়নের কাজে খরচা করছি। এক পয়সাও দুৰ্নীতি হচ্ছে না। এদিকে এদিন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের সভা শুরু হওয়ার আগেই হবিবপুর ব্লক এর আইহো স্ট্যান্ডের কাছে রাজ্য তথা সর্বভারতীয় বিজেপি নেতাদের পোস্টার পোড়ানোর অভিযোগ উঠেছে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। যদিও তারা সফল হয়নি, কিন্তু বিজেপির পোস্টারে থাকা নেতৃত্বদের মুখে গোবর লাগানোর অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক মহলে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

No comments

Powered by Blogger.