Header Ads

কাগজ কল পুনরায় খোলার দাবিতে বরাকে বনধের প্ৰভাব সৰ্বাত্মক

নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, গুয়াহাটিঃ একমাত্ৰ বৃহৎ শিল্প কাছাড় পেপার মিলকে পুনরায় খোলার দাবিতে বৃহস্পতিবার সৰ্বাত্মক বনধ দেখা গেল বরাক উপত্যকায়। এদিন হিন্দুস্থান পেপার কৰ্পোরেশন রিভাইবেল অ্যাকশন কমিটির ডাকা বনধের সৰ্বাত্মক প্ৰভাব পড়েছে করিমগঞ্জ, কাছাড় এবং হাইলাকান্দিতে। দোকানপাট, ব্যবসা প্ৰতিষ্ঠান, যানবাহন চলাচল সমস্তই এদিন বন্ধ ছিল। কাগজ কারখানাকে পুনরায় খোলার দাবিতে এদিন পরিবার পরিজনদের নিয়ে রাস্তায় নামেন আন্দোলনকারীরা। পরিজনদের নিয়ে শিলচর স্টেশনে রেল রোকো আন্দোলনেও সামিল হন কৰ্মচারীরা। বিধায়ক নিজামুদ্দিন সহ প্ৰায় ৫০ জন আন্দোলনকারীকে গ্ৰেফতার করে পুলিস। পরে অবশ্য তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। এনিয়ে বরাকের কংগ্ৰেস বিধায়ক কমলাক্ষ্য দে পুরকায়স্থ বলেন, এর জবাব আগামী নিৰ্বাচনে দেবে বরাকবাসী। অ্যাকশন কমিটির মুখ্য আহ্বায়ক মানবেন্দ্ৰ চক্ৰবৰ্তী ‘নয়া ঠাহর’কে বলেন- বিরোধী দল কংগ্ৰেস, সিপিএম, এআইইউডিএফ সমেত বরাকের প্ৰত্যেক ছোটখাটো দল এদিনের বনধে সামিল হয়েছে। এমন আন্দোলন এর আগে কখনও দেখা যায়নি। বিজেপি নেতা মন্ত্ৰীদের লজ্জায় মুখ ঢাকার জায়গা ছিল না। তিনি আরও বলেন-  কাছাড় পেপার মিলে প্ৰায় ৬ লক্ষ কৰ্মচারী রয়েছে। এইসব কৰ্মচারীদের অৰ্থ উপাৰ্জনের কোনও উপায় না থাকায় অনাহারে, বিনা চিকিৎসায় এবং আত্মহত্যা করে এখন পৰ্যন্ত ৩৯ জন মারা গিয়েছে। ২০১৮-র ১২ সেপ্টেম্বর রাজ্যের শিল্প মন্ত্ৰী চন্দ্ৰমোহন পাটোয়ারী বলেছিলেন, প্ৰধানমন্ত্ৰীর দফতরে এ সংক্ৰান্ত ফাইল পড়ে রয়েছে। আমরা আন্দোলনকারীরা সেই ফাইল ক্লিয়ার করার দাবি জানাচ্ছি। এই বনধকে বিফল করতে নানান দিক থেকে চক্ৰান্ত হয়েছে। কিন্তু সব চক্ৰান্ত ব্যৰ্থ হয়েছে। প্ৰসঙ্গত, বরাক উপত্যাকার একমাত্ৰ বৃহৎ শিল্প হচ্ছে এই পেপার মিল। তার আগে চিনি, জুট সমেত আরও বহু ছোটখাটো শিল্প ছিল কিন্তু সেগুলি সব বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৫ সালের ২০ অক্টোবর বন্ধ হয় এই কাগজ মিল। ১৯ অক্টোবর পৰ্যন্ত ৩০০ মেট্ৰিকটন উন্নত মানের কাগজ উৎপাদন করেছে ওই কারখানা। যেদিন কারখানা বন্ধ হয় সেদিনও মজুত ছিল ৩৯ হাজার মেট্ৰিকটন কাঁচামাল বাঁশ, সাড়ে ১২ হাজার মেট্ৰিকটন কয়লা, ২৫ হাজার মেট্ৰিকটন চুন। বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর বন্ধ হয়ে যায় কারখানা। ৩ বছর ধরে বেতন পাচ্ছেন না কারখানার কৰ্মীরা। তারই পরিণতিতে কারখানার কৰ্মীদের এই ক্ষোভ। এই আন্দোলনে কাজ না হলে পরবৰ্তীতে আন্দোলন দিল্লি পৰ্যন্ত নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন অ্যাকশন কমিটির মুখ্য আহ্বায়ক মানবেন্দ্ৰ চক্ৰবৰ্তী।

No comments

Powered by Blogger.